Press "Enter" to skip to content

দুর্নীতি বন্ধে কঠোর অবস্থানে প্রধানমন্ত্রী : গণপূর্ত মন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দুর্নীতি বন্ধে কঠোর অবস্থানে রয়েছেন বলে জানিয়েছেন গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রী শ. ম. রেজাউল করিম।

তিনি আজ দুপুরে পিরোজপুরে উন্নয়নে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের বিভিন্ন প্রস্তাব জানতে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের জেলা নির্বাহী প্রকৌশলীর কার্যালয়ের উদ্যোগে আয়োজিত সদর উপজেলার অবকাঠামো উন্নয়ন শীর্ষক এক মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য দানকালে এ কথা জানান।

সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আসিফ মাহমুদের সভাপতিত্বে উপজেলা পরিষদের নব নির্মিত শহীদ ওমর ফারুক মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত এ মতবিনিময় সভায় অন্যান্যের মধ্যে মধ্যে বক্তব্য রাখেন পরিকল্পনা মন্ত্রনালয়ের অতিরিক্তি সচিব আখতারুজ্জামান খান কবির, জেলা প্রশাসক আবু আলী মো. সাজ্জাদ হোসেন, পুলিশ সুপার হায়াতুল ইসলাম খান, পিরোজপুর পৌরসভার মেয়র মো. হাবিবুর রহমান মালেক, এলজিইডির নির্বাহী প্রকৌশলী সুশান্ত রঞ্জন রায়, জেলা পরিষদের নির্বাহী কর্মকর্তা রেবেকা খান ও পিরোজপুর সদর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান এস এম বায়েজিদ হোসেন।

এছাড়াও সভায় উপজেলার ৭ ইউনিয়নের ৭ চেয়ারম্যান এবং প্রতিটি ইউনিয়নের ২ জন করে সদস্য বক্তব্য রাখেন।

শ. ম. রেজাউল করিম বলেন, দেশের উন্নয়নে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কোন বিকল্প নেই। কারণ তিনি দেশের সকল প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীদের দুপুরের খাবার দেয়ার পরিকল্পনা গ্রহণ করেছেন।

তিনি বলেন, বছরের প্রথম দিন সকল প্রাথমিক, মাধ্যমিক, কারিগরি ও মাদ্রাসার ছাত্র-ছাত্রীদের হাতে নতুন বই তুলে দেয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন বর্তমান সরকার, যা বিশ্বের আর কোন দেশই তা করতে পারে নি।

গৃহায়ন মন্ত্রী বলেন, পিরোজপুর-১ আসনের তিনটি উপজেলার অবকাঠামো উন্নয়নে প্রায় ৩ হাজার ৫০০ কোটি টাকার ব্যাপক উন্নয়ন কর্মসুচি গ্রহন করেছে সরকার।

তিনি বলেন, এর মধ্যে জেলার নেছারাবাদ (স্বরূপকাঠীর) উপজেলার সঙ্গে নাজিরপুর উপজেলা হয়ে পিরোজপুর সদরের সাথে সরাসরি সড়ক যোগাযোগের জন্য সন্ধ্যা নদী, বেলুয়া নদীতে ব্রীজ, কালভার্ট সহ রাস্তা তৈরির সম্ভাব্যতা যাচাই ইতোমধ্যেই শেষ হয়েছে।

নির্বাচিত স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, জনপ্রতিনিধিদের নিজ নিজ নির্বাচিত এলাকার উন্নয়নের জন্য জনগণকে সঙ্গে নিয়ে একত্রে কাজ করতে হবে। এলাকার সবার মতামত নিয়ে অগ্রাধিকার ভিত্তিতেই উন্নয়ন কাজ ত্বরান্বিত করতে হবে।

তিনি বলেন, দলমত নির্বিশেষে সকলে মিলে সহযোগিতা করলে পিরোজপুরের উন্নয়ন এখন সময়ের ব্যাপার মাত্র। রাজনৈতিক দলীয় মত পার্থক্য থাকতেই পারে, তা আমরা মাঠে মোকাবেলা করবো। কিন্তু পিরোজপুরের উন্নয়নে দলমত নির্বিশেষে সকলের অংশ গ্রহন করা উচিৎ।

শেয়ার অপশন:
Don`t copy text!