Press "Enter" to skip to content

দুর্নীতি তদন্তকারী সংস্থার টার্গেটে ‘ঋতুপর্ণা’

আর্থিক দুর্নীতির সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে দুর্নীতি তদন্তকারী সংস্থার টার্গেটে পরিণত হয়েছেন জনপ্রিয় ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত। তাকে জেরা করা হচ্ছে।

আজ বৃহস্পতিবার ভারতের অর্থনৈতিক দুর্নীতি বিষয়ক তদন্তকারী সংস্থা এনফোর্সম্যান্ট ডিরেক্টোরেট বা ইডি দফায় দফায় তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে বলে জানা গেছে।

অভিনেত্রীর সঙ্গে ভারতের বৃহত্তম চিটফান্ড প্রতারণার সঙ্গে জড়িত ভারতের রোজভ্যালি গ্রুপের কর্ণধার গৌতম কুণ্ডুর সুসম্পর্ক ছিল। এই ব্যবসায়ী কোটি কোটি টাকা বিনিয়োগ করেছিলেন চলচ্চিত্র খাতে। সে কারণে বহু চলচ্চিত্র এবং চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্ট কাজে যুক্ত ছিলেন ঋতুপর্ণা।

গোয়েন্দারা মনে করছেন, বহুবার গৌতম কুণ্ডুর সঙ্গে বিদেশ ভ্রমণও করেছেন ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত। সেই সময় দেশের টাকা বাইরে পাচার করা হয়েছে চলচ্চিত্রের নাম করে।

এছাড়াও অভিনেত্রীর সংস্থার সঙ্গে রোজভ্যালির প্রায় সাড়ে সাত কোটি টাকার লেনদেনও হয়েছে। সেই টাকার উৎস এবং খরচের খতিয়ানও জানতে চাইছেন গোয়েন্দারা।

বৃহস্পতিবার স্থানীয় সময় সকাল ১১টায় কলকাতার সল্টলেকে কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থার দপ্তরে পৌঁছান অভিযুক্ত অভিনেত্রী। তার প্রতিষ্ঠানের একজন আইনজীবীকেও সঙ্গে নিয়ে গিয়েছেন ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত।

এর আগে ভারতের অর্থনৈতিক দুর্নীতি বিষয়ক তদন্তকারী সংস্থা এনফোর্সম্যান্ট ডিরেক্টোরেট বা ইডি তাকে জেরার জন্য চিঠি পাঠায়।

বৃহস্পতিবার সকালে ইডি ভবনের প্রবেশের সময় অভিনেত্রী ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত অপেক্ষমান সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, তাকে ব্যক্তিগতভাবে নয় প্রতিষ্ঠানকে ডাকা হয়েছে। সে কারণেই তিনি জেরায় বসছেন।

ঋতুপর্ণা আরও জানান, জেরায় তিনি কী বলবেন কিংবা কী বিষয়ে প্রশ্ন করা হবে সেসব কিছুই পরে তিনি সাংবাদিকদের বলবেন।

শেয়ার অপশন: