ব্রেকিং নিউজ

সকাল ৯:০৩ ঢাকা, শুক্রবার  ২১শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

১১ মরদেহ উদ্ধার
নমুনা ফটো

দিল্লিতে এক বাড়িতে ‘একই পরিবারের ১১ লাশ’

ভারতের রাজধানী দিল্লির বুরারি এলাকার একটি বাড়িতে রোববার সকালে একই পরিবারের ১১ জনের মরদেহ পাওয়া গেছে।

তাদের কয়েক জনের দেহ লোহার গ্রিলের সঙ্গে ঝোলানো ছিল। কারও কারও শরীর মেঝে হাত-মুখ-চোখ বাঁধা অবস্থায় শায়িত ছিল।

এনডিটিভি জানিয়েছে, বুরারি এলাকার একটি বাড়িতে মরদেহগুলো পাওয়া গেছে। নিহতদের মধ্যে চারজন পুরুষ, চারটি মেয়ে ও তিন নারী রয়েছেন।

পুলিশের বলেছে, তাদের মৃত্যুর কারণ সম্পর্কে এখনও জানা যায়নি। তবে তারা আত্মহত্যা করেছেন বলে সন্দেহ করা হচ্ছে। এতে কোনো আত্মহত্যার নোট পাওয়া যায়নি।

দিল্লির মধ্যবিত্ত এলাকার এই পরিবারটি নিজেদের বাড়ির সামনের অংশে একটি মুদির দোকান ও একটি আসবাবপত্রের ব্যবসা চালাতেন। প্রতিদিন সকাল ৬টায় দোকান খুলত তারা।

কিন্তু রোববার সকাল সাড়ে ৭টা পর্যন্ত দোকান না খোলায় খোঁজ নেয়ার জন্য এক প্রতিবেশী বাড়িটিতে প্রবেশ করেন। পরিবারটির অধিকাংশ সদস্যকে ফাঁস লাগানো অবস্থায় গ্রিল থেকে ঝুলতে দেখে হতভম্ব হয়ে পড়েন তিনি।

তিনি পুলিশকে খবর দিলে তারা ঘটনাস্থলে এসে জায়গাটি ঘিরে ফেলে।

তদন্তের প্রাথমিক পর্যায়ে ওই এলাকার সিসিটিভি ফুটেজ পরীক্ষা করে দেখছে পুলিশ। তারা ঘটনাস্থল থেকে তথ্য সংগ্রহ করার কথা জানিয়েছে।

দিল্লি পুলিশের যুগ্ম কমিশনার বলেন, সম্ভাব্য সব দিক থেকেই তদন্ত করে দেখছি আমরা, কোনো কিছুই বাতিল করছি না।

নাম প্রকাশে এক পুলিশ কর্মকর্তা বলেন, তাদের ঘরের দরজা সচরাচর বন্ধ থাকত। কিন্তু রোববার খোলা ছিল।