ব্রেকিং নিউজ

সকাল ৯:০৮ ঢাকা, শনিবার  ১৭ই নভেম্বর ২০১৮ ইং

নলছিটি যুবদল

দলীয় গ্রুপিং: নলছিটি যুবদলের দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ, জখম ৩

কে এম সবুজ, ঝালকাঠি ॥

ঝালকাঠির নলছিটিতে যুবদলের গ্রুপিং প্রকাশ্যে রূপ নিয়েছে। আজ বুধবার দুই গ্রুপের সংর্ঘষে তিনজন আহত হয়েছে। আহতদের মধ্যে উপজেলা যুবদলের সহসভাপতি মাহাবুবুর রহমানকে বরিশাল শেরেবাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সকাল ১০টায় সদর উপজেলার বারইকরণ খেয়াঘাট এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

জানাযায়, বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের ৩৬ তম মৃত্যু বার্ষিকী উপলক্ষে ঝালকাঠি জেলা যুবদল শহরের কামারপট্টির কার্যালয়ে আলোচনা সভা ও শোকযাত্রার আয়োজন করে। এতে যোগ দিতে সকাল ১০টায় নলছিটি উপজেলা যুবদলের সভাপতি মাসুম শরীফ ও পৌর যুবদলের সভাপতি লাভলু সিকদারের নেতৃত্বে যুবদলের একাংশ বারইকরণ খেয়াঘাট এলাকায় আসে। একই সময় উপজেলা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক সালাউদ্দিন আহম্মেদ শাহিনের নেতৃত্বে যুবদলের অপর এক অংশ ওই এলাকায় উপস্থিত হয়। দুই গ্রুপের নেতা-কর্মীরা ইঞ্জিন চালিত ট্রলারে সুগন্ধা নদী পার হয়ে ঝালকাঠি শহরে আসার জন্য ওঠে। ট্রলারে ওঠাকে কেন্দ্র করে দুই গ্রুপের মধ্যে প্রথমে বাকবিতন্ডা শুরু হয়। এক পর্যায়ে দুই গ্রুপ সংর্ঘষে জড়িয়ে পড়ে। এতে ‘শাহিন গ্রুপের’ উপজেলা যুবদলের সহসভাপতি মাহাবুবুর রহমান রক্তাক্ত জখম হয়। ‘মাসুম শরীফ ও লাভলু গ্রুপের’ আহত হয় পৌর যুবদলের সভাপতি লাভলু সিকদার ও যুবদলকর্মী মো. বশির।

এ বিষয়ে উপজেলা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক সালাউদ্দিন আহম্মেদ শাহিন বলেন, আমরা নেতা-কর্মীদের নিয়ে খেয়াঘাটের ট্রলারে ওঠার সময় অপর পক্ষ আমাদের ট্রলারে ওঠে যেতে চায়। এতে বাধা দিলে তারা মারধর শুরু করে। যুবদলনেতা মাহাবুবের মাথায় ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করে লাভলু সিকদার। এতে মাহাবুরের মাথা ফেটে যায়। মাহাবুবকে বরিশাল শেরেবাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

অপর পক্ষ এ বিষয়ে উপজেলা যুবদলের সভাপতি মাসুম শরীফ বলেন, আমি দুই পক্ষকেই শান্ত হতে বললেও তারা শুনেনি। শাহিনের লোকজনই উত্তেজিত হয়ে প্রথমে হামলা শুরু করে। এ ঘটনায় পৌর যুবদলের সভাপতি লাভলু সিকদার ও যুবদলকর্মী মো. বশির আহত হয়। আহতদের নলছিটি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্ষে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

ঝালকাঠি জেলা যুবদলের সভাপতি এম কামরুল ইসলাম বলেন, নলছিটিতে যুবদলের দুইপক্ষের মধ্যে মারামারির খবর শুনেছি। এটা মিমাংসা করে দেওয়া হবে। এ ঘটনা নিয়ে থানা পুলিশ বা হয়রানি করার কেউ চেষ্টা করলে, তাদের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

ঝালকাঠি থানার উপ-পরিদর্শক আব্দুল হালিম তালুকদার বলেন, হামলা মারধরের ঘটনা শুনে আমরা ঘটনাস্থলে যাওয়ার আগেই তারা চলে যায়। এখনো কেউ অভিযোগ দেয়নি, অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

অনুসন্ধানে জানাযায়, যুবদলের কমিটি গঠনকে কেন্দ্র করে দুই গ্রুপের মধ্যে মৌন গ্রুপিং শুরু হয়েছে প্রায় এক বছর আগে। এবার সংর্ঘষের মাধ্যমে গ্রুপিং প্রকাশ্যে রূপ নিয়েছে। উপজেলা যুবদলের সভাপতি রয়েছেন মাসুম শরীফ। এই পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতার ঘোষণা দেন বর্তমান সাধারণ সম্পাদক সালাউদ্দিন আহম্মেদ শাহিন। এতেই শুরু হয় গ্রুপিং।

 

নলছিটির বিএনপি বেহেশতে !

৯১’র ঘূর্ণিঝড়: খালেদা বলেছিলেন, ‘যত মানুষ মরার কথা ছিল তত মানুষ মরেনি’

‘দুর্নীতির কারণেই গ্যাসের দাম বৃদ্ধি’ – ফখরুল