Sheersha Media

ব্রেকিং নিউজ

দুপুর ২:৪২ ঢাকা, রবিবার  ১৮ই নভেম্বর ২০১৮ ইং

ফাইল ফটো

দরিদ্র জনগোষ্ঠীকে অগ্রাধিকার দিয়ে সকলের জন্য ব্যাংকিং সেবা দিতে চাই : গভর্নর

প্রচলিত ব্যাংকিং থেকে বেরিয়ে এসে মানুষ ও সমাজের কল্যাণে ‘মানবিক ব্যাংকিং’ করতে ব্যাংকগুলোর প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ড. আতিউর রহমান।
তিনি বলেন,‘আমরা সকলের জন্য ব্যাংকিং সেবা দিতে চাই, যেখানে দরিদ্র জনগোষ্ঠী অগ্রাধিকার পাবে।’
মঙ্গলবার রাজধানীর বাংলা একাডেমি প্রাঙ্গনে প্রথমবারের মতো ব্যাংকিং মেলার উদ্বোধনী বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।
কেন্দ্রিয় ব্যাংকের ডেপুটি গভর্নর এস কে সূর চৌধুরীরর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে এনবিআর চেয়ারম্যান মো. নজিবুর রহমান,অর্থ মন্ত্রনালয়ের ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের সচিব ড. এম আসলাম আলম, অর্থ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব মঈনুল ইসলাম, বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রধান অর্থনীতিবিদ বিরুপাক্ষ পাল প্রমূখ বক্তব্য রাখেন।
বাংলাদেশ ব্যাংকের আয়োজনে পাঁচ দিনব্যাপী এই মেলায় দেশি-বিদেশি ৫৬টি ব্যাংক, ছয়টি আর্থিক প্রতিষ্ঠান ও সাতটি আর্থিক সেবাসংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠঅন অংশ নিয়েছে। এতে ব্যাংকগুলো ঋণ ও আমানত স্কিমসহ বিভিন্ন ধরনের পণ্য ও সেবা সম্পর্কে তথ্য তুলে ধরা হয়েছে।
গভর্নর বলেন,‘কেবলমাত্র মুনাফা বাড়ানোই যেন ব্যাংকের উদ্দেশ্য না হয়।মানুষ, সমাজ ও আমাদের প্রিয় ধরিত্রীর জন্য ব্যাংকিং খাত কাজ করবে।এই মেলা মানবিক ব্যাংকিংয়ের অনুপ্রেরণা দিবে বলে আমার বিশ্বাস।’
তিনি বলেন,আর্থিক সেবাবঞ্চিত তৃণমূল জনগোষ্ঠীকে প্রাতিষ্ঠানিক আর্থিক সেবাভূক্তির আওতাভুক্ত করার লক্ষ্যে দেশের কৃষক, দুঃস্থ ও অতি দরিদ্র নারীসহ নিম্ন আয়ের শ্রমজীবী মানুষের জন্য মাত্র দশ টাকা জমায় ব্যাংক হিসাব খোলার সুযোগ করে দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক।এরই ধারাবাহিকতায় দশ টাকার হিসাবধারীদের আয় উৎসারী কর্মকা-কে আরো গতিশীল করতে ২০০ কোটি টাকার একটি আবর্তনশীল পুনঃঅর্থায়ন তহবিল গঠন করা হয়েছে।
মেলায় বাংলাদেশ ব্যাংকের আর্থিক শিক্ষা,টাকা জাদুঘর,বাংলাদেশ সিকিউরিটি প্রিন্টিং প্রেস (টাকা তৈরির মেশিন), বিভিন্ন প্রকাশনা,স্মারক মুদ্রা ও নোট ক্রয়,জনসাধারণের জন্য সেবা ও অভিযোগ কেন্দ্র খোলা হয়েছে।
প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত মেলা চলবে।