শীর্ষ মিডিয়া

ব্রেকিং নিউজ

রাত ৯:৫৭ ঢাকা, সোমবার  ১৭ই ডিসেম্বর ২০১৮ ইং

”দক্ষিণ আফ্রিকার সঙ্গে টি টোয়েন্টি লড়াই হবে কঠিন”

আজ একটি টি-টোয়েন্টি সিরিজের মধ্যে দিয়ে শুরু হচ্ছে দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেট দলের আনুষ্ঠানিক বাংলাদেশ সফর।

প্রায় এক মাসের এই সফরে বাংলাদেশের সাথে দুটি টি-টোয়েন্টি, তিনটি ওয়ানডে এবং দুটি টেস্ট ম্যাচ খেলবে দক্ষিণ আফ্রিকা দল।

যদিও বাংলাদেশ দল টি-টোয়েন্টিতে এখন পর্যন্ত উল্লেখযোগ্য কোন সাফল্য অর্জন করতে পারেনি, তারপরও সাম্প্রতিক জয়ের ধারাবাহিকতা বিবেচনায় পরাক্রমশালী দক্ষিণ আফ্রিকার সঙ্গে এই দ্বিপাক্ষিক সিরিজে বাংলাদেশ দারুণ কিছু করে দেখানোর কথা বলছে।

ওদিকে অতীতে বাংলাদেশকে নাকানিচুবানি খাওয়ালেও এখনকার বাংলাদেশকে মোটেও হালকাভাবে নিচ্ছে না দক্ষিণ আফ্রিকা।

সিরিজ শুরুর আগে গতকাল দুদলেরই অধিনায়কেরা এক সংবাদ সম্মেলনে মুখোমুখি হয়েছিলেন।

বিশ্বকাপে দারুণ খেলে কোয়ার্টার ফাইনালে উন্নীত হবার পর এমনিতেই চনমনে ছিল বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। এর পর ঘরের মাঠে পাকিস্তান ও ভারতের সাথে পরপর দুটি দ্বিপাক্ষিক সিরিজেই আধিপত্য প্রদর্শনের পর দলটির আত্মবিশ্বাস এখন তুঙ্গে থাকবার কথা। এরকম পরিস্থিতিতে কাল দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে যে দুই ম্যাচের টি-টোয়িন্ট সিরিজটি শুরু হবে সেখানে কি অর্জনের আশা করছে দলটি?
ম্যাচপূর্ব সংবাদ সম্মেলনে অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা বলেছেন ব্যাটিং, বোলিং, ফিল্ডিং সব দিকে দিয়েই দক্ষিণ আফ্রিকা শক্তিশালী দল। টি-টোয়েন্টিতে বাংলাদেশের সেরকম বিশেষ অবদান না থাকলেও দল যেভাবে ভাল খেলছে তার ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে পারলে, বাংলাদেশ দল ভাল করবে বলেই তার বিশ্বাস।

দলটিকে ক্রিকেটের তিন বিভাগের মধ্যে টি-টোয়েন্টিতেই সবচাইতে দুর্বল বলে ধরা হয়। মোট ৪২টি ম্যাচ খেলে এখন পর্যন্ত জয় পেয়েছে মোটে বারোটিতে। সবশেষ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ঘরের মাঠে আফগানিস্তানের মতো দলের সাথেও বাংলাদেশ হেরেছে।

উল্লেখ্য, পৃথিবীতে সবচেয়ে ভাল টি-টোয়েন্টি খেলতে পারা দলগুলোর একটি দক্ষিণ আফ্রিকা। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে বাংলাদেশের অতীত রেকর্ডও তেমন ভাল না। কাগজে কলমে পরিস্থিতি বাংলাদেশের প্রতিকূলে হলেও, এবার দক্ষিণ আফ্রিকার সঙ্গে এই সিরিজ বাংলাদেশ যেহেতু খেলছে এমন সময়ে যখন বাংলাদেশ ক্রিকেটে তার সেরা সময় পার করছে, তাই এই উঁচু মনোবলকে বাংলাদেশ কাজে লাগাতে পারবে কীনা সেটাই দেখার বিষয়।

ফতুল্লায় যে একমাত্র প্রস্তুতি ম্যাচটি হয়েছে সেটিতে অবশ্য বাংলাদেশকে একেবারে উড়িয়ে দিয়ে জিতেছে দক্ষিণ আফ্রিকা।

এটিকে একটা দারুণ শুরু হিসেবে দেখলেও নিজেদের কণ্ডিশনে বাংলাদেশকে মোটেও খাটো করে দেখছে না সফরকারী দলটি।

সংবাদ সম্মেলনে দক্ষিণ আফ্রিকা টি-টোয়েন্টি দলের অধিনায়ক ফ্যাফ ডু প্লেসিস বলেছেন প্রস্তুতি ম্যাচের পর আমরা এটা বুঝতে পারছি যে সত্যিকারের টুর্নামেন্টে তাদের সঙ্গে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় টিঁকে থাকা বেশ কঠিনই হবে। অবশ্যই তারা এই কন্ডিশনের সাথে অভ্যস্ত। যদিও গতকল আমাদের জন্য দিনটি ভালো ছিল, কিন্তু আগামীকাল (আজ) নিশ্চয়ই অনেক আলাদা হবে বলে তিনি মন্তব্য করেছেন।

বাংলাদেশ এখন পর্যন্ত দক্ষিণ আফ্রিকার সাথে দুটি মাত্র টি-টোয়েন্টি খেলেছে এবং দুটিতেই তারা পরাজিত হয়েছে।