Press "Enter" to skip to content

রাজতন্ত্রকে অপমান বা অবজ্ঞা করলে শাস্তি ‘একঘরে’ করা

রাজতন্ত্র এবং রাজ পরিবারকে কেউ অপমান বা অবজ্ঞা করলে সমাজে তাকে একঘরে করার জন্য জনগণের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন থাইল্যান্ডের বিচারমন্ত্রী পাইবুন কুমচায়া।

রাজা ভূমিবল আদুলিয়াদে’র মৃত্যুর পর যথেষ্ট সম্মান না দেখানোর অভিযোগে থাইল্যান্ডে অনেককেই নাজেহাল এমনকী মারধরের সম্মুখীন হতে হচ্ছে।

সোশ্যাল মিডিয়াতে প্রচারিত এক ভিডিও ফুটেজে দেখা গেছে, রাজতন্ত্রকে কটূক্তি করার অভিযোগে এক মহিলাকে হাঁটু গেড়ে মৃত রাজার ছবির সামনে হাতজোড় করে বসিয়ে রাখা হয়েছে। চারদিকে অনেক ক্রুদ্ধ লোকজন দাঁড়িয়ে তাকে গালিগালাজ করেছ।

এমনকী কালো-সাদা পোশাক না পরার জন্যও অনেককে মানুষের হাতে হেনস্তা হতে হয়েছে। একটি ভিডিওতে দেখা গেছে, মানুষজন একটি বাস থেকে বৃদ্ধা এক মহিলাকে ধাক্কা দিয়ে নামিয়ে দিচ্ছে।

সেই প্রেক্ষাপটেই বিচারমন্ত্রীর এই আহ্বান। মন্ত্রী বলেন,”সামাজিকভাবে একঘরে করার চেয়ে বড় শাস্তি আর নেই।”

সংবাদদাতারা বলছেন, সহিংসতা থেকে জনগণকে বিরত রাখতেই হয়ত সামাজিক বয়কটের এই কথা বলছেন সরকারের মন্ত্রী।

থাইল্যান্ডের আইনে রাজতন্ত্রকে অপমান, কটাক্ষ করা অপরাধ।

কিন্তু রাজা ভূমিবলের মৃত্যুর পর রাজাকে যথেষ্ট সম্মান না দেখানোর অছিলায় রাজতন্ত্রের সমর্থকরা রাস্তাঘাটে মানুষজনকে হেনস্থা করছে।

সেনা সরকার সহিংসতা না করতে আহ্বান জানাচ্ছে, কিন্তু একইসাথে হুঁশিয়ার করেছে, রাজা বা রাজতন্ত্রকে কেউ অপমান করলে ছাড়া হবে না।

সোশ্যাল মিডিয়াতে অপমানজনক কোনো বার্তা ছাড়া হলে তা ব্লক করতে এবং সরকারকে জানাতে আইএসপি অর্থাৎ ইন্টারনেট সেবা-দানকারী প্রতিষ্ঠানগুলোকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।বিবিসি

Mission News Theme by Compete Themes.