ব্রেকিং নিউজ

সকাল ৯:২৮ ঢাকা, বুধবার  ১৯শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

“তৈরি পোশাক খাতে জার্মান সহায়তা দিয়েই যাবে”

বাংলাদেশের তৈরি পোশাক খাতের অগ্রগতির বিষয়ে সন্তোষ প্রকাশ করে সফররত জার্মান অর্থনৈতিক সহযোগিতা বিষয়ক মন্ত্রী ড. জার্ড মুলার আজ আশ্বাস দিয়েছেন যে, তাঁর দেশ এ খাতের আরো উন্নয়নের লক্ষ্যে সহায়তা দিয়ে যাবে।
তিনি বলেন, আমরা বাংলাদেশের বস্ত্র খাতে এ যাবৎ অর্জিত অগ্রগতিতে সন্তুষ্ট এবং আমরা এ খাতের উন্নয়নে সহায়তা অব্যাহত রাখতে চাই।
জার্মান মন্ত্রী আজ বিকেলে এখানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে তাঁর সরকারি বাসভবন গণভবনে সৌজন্য সাক্ষাতকালে এ আশ্বাস প্রদান করেন।
সাক্ষাতের পর, প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন।
জার্মান মন্ত্রীর সঙ্গে তৈরি পোশাক খাতের ইস্যু নিয়ে আলোচনাকালে প্রধানমন্ত্রী ২০০৯ সাল থেকে তৈরি পোশাক খাতের শ্রমিকদের মজুরি ২০০ শতাংশের বেশি বৃদ্ধি এবং তাদের সুরক্ষা ও নিরাপত্তা নিশ্চিত করার বিষয়সহ এ খাতের উন্নয়নে তাঁর সরকারের গৃহীত বিভিন্ন পদক্ষেপের উল্লেখ করেন।
এ প্রসঙ্গে শেখ হাসিনা পোশাক খাতের পণ্যের দাম বাড়ানোর জন্য বিদেশী ক্রেতাদের প্রতি আহ্বান জানান। তিনি বলেন, এই অর্থ পোশাক খাতের শ্রমিকদের কল্যাণে ব্যয় করা হবে।
ড. জার্র্ড মুলার বিভিন্ন খাতে বাংলাদেশের ব্যাপক সাফল্যের প্রশংসা করে বলেন, বাংলাদেশ জার্মানির প্রিয় অংশীদার।
এ প্রসঙ্গে শেখ হাসিনা বলেন, তাঁর দলের নীতি হচ্ছে শ্রমিক ও কৃষকের স্বার্থ রক্ষা করা।
জার্মান মন্ত্রী দুই দেশের মধ্যে জ্বালানি ও চামড়া খাতে সহযোগিতা সম্প্রসারণের ওপর গুরুত্ব আরোপ করেন।
প্রধানমন্ত্রী দেশের আরো উন্নয়নের লক্ষ্যে আরো বেশি জার্মান বিনিয়োগ কামনা করেন।
দেশে কয়লা-ভিত্তিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র স্থাপনের উল্লেখ করে শেখ হাসিনা সৌর বিদ্যুৎ খাতে জার্মান সহযোগিতা কামনা করেন।
প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশ সফরে আসার জন্য মন্ত্রীর মাধ্যমে জার্মান চ্যান্সেলর এঞ্জেলা মার্কেলকে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন।
প্রধানমন্ত্রীর আন্তর্জাতিক বিষয়ক উপদেষ্টা ড. গওহর রিজভি, প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব মো. আবুল কালাম আজাদ এবং বাংলাদেশে নিযুক্ত জার্মান রাষ্ট্রদূত ড. আলব্রেখট কোনজে এ সময় উপস্থিত ছিলেন।