ব্রেকিং নিউজ

রাত ১১:৫১ ঢাকা, রবিবার  ২৩শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

তারেক রহমান
বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমান

‘তারেক রহমানের আত্মসমর্পণের অপেক্ষায় আদালত’

অবৈধভাবে অর্থপাচার (মানি লন্ডারিং) মামলায় বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমান আদালতের আদেশ অনুযায়ী আত্মসমর্পণ করেন কিনা তা আগামী ১৬ মার্চ পর্যন্ত দেখবে হাইকোর্ট। ওই দিন এ বিষয়ে পরবর্তী আদেশ দেয়া হবে।
বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি আমির হোসেন সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্টের একটি ডিভিশন বেঞ্চ আজ এ আদেশ দেয়।
আদালতে দুদকের পক্ষে শুনানি করেন এডভোকেট খুরশীদ আলম খান। তিনি জানান, গত ২৮ ফেব্রুয়ারি তারেক রহমানের লন্ডনের ঠিকানায় পাঠানো আত্মসমর্পণের সমন পৌঁছেছে কি-না, তা বিচারিক আদালতকে জানাতে নির্দেশ দিয়েছিলো হাইকোর্ট। আজ বৃহস্পতিবার ৩ মার্চ সিএমএম হাইকোর্টকে জানিয়েছেন- প্রথমে তারা হাইকোর্টের আদেশ বোঝেননি। পরে ২৯ ফেব্রুয়ারি আবারো সমন পাঠানো হয়েছে। এ কারণে ন্যায় বিচারের স্বার্থে ১৬ মার্চ পর্যন্ত আদালত দেখবে তারেক রহমান আদেশ পালন করেন কি-না। এরপর ওইদিন পরবর্তী আদেশে দেয়া হবে।
মানি লন্ডারিং এর অভিযোগে করা মামলায় তারেক রহমানের বিরুদ্ধে গত ১২ জানুয়ারি সমন জারির নির্দেশ দেয় হাইকোর্ট।
খুরশীদ আলম খান বলেন, আদালত তারেক রহমানের বিরুদ্ধে নতুন করে সমন জারির নোটিশ পাঠাতে বলেছে। একইসঙ্গে একটি বাংলা ও একটি ইংরেজি দৈনিকে এ বিষয়ে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করতেও বলেছে। সে অনুযায়ী সমন প্রেরণ ও পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়।
তারেক রহমানের বিরুদ্ধে অবৈধভাবে অর্থের লেনদেনের (মানি লন্ডারিং) অভিযোগে করা মামলায় বিচারিক আদালতে খালাসের আদেশ বাতিল চেয়ে আনা আপিল শুনানির জন্য দিন ধার্যে গত ৩ জানুয়ারি আবেদন করে দুদক।
২০১১ সালের ৮ আগস্ট তারেক রহমানকে পলাতক দেখিয়ে অভিযোগ গঠন করা হয়।
এ মামলা দায়ের থেকে শুরু করে পুরো বিচার প্রক্রিয়াতেই অনুপস্থিত তারেক রহমান। গত আট বছর ধরে তিনি যুক্তরাজ্যে রয়েছেন। বাসস

http://www.bssnews.net/bangla/newsDetails.php?cat=6&id=335193&date=2016-03-03