ব্রেকিং নিউজ

রাত ২:২০ ঢাকা, রবিবার  ২৩শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

হানিফ ও তারেক জিয়া
মাহবুব-উল আলম হানিফ ও তারেক জিয়া

তারেকের সাজা: ‘রাজনৈতিকভাবে মোকাবেলার সুযোগ নেই’- হানিফ

আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল-আলম হানিফ এমপি বলেছেন, বিএনপি নেতা তারেক রহমানের বিরুদ্ধে দেয়া রায়ের বিরুদ্ধে আপীল করে সুবিধা করতে পারবে না জেনেই বিএনপি আইনী লড়াইয়ের পরিবর্তে তা রাজনৈতিকভাবে মোকাবেলা করতে চাচ্ছে।

আদালতের রায়ে তারেক রহমান দুর্নীতিবাজ উল্লেখ করে তিনি বলেন, নিম্ন আদালতের রায়কে প্রভাবিত করার জন্য বিচারককে ঘুষ প্রদান করেছিলেন। নিম্ন আদালতের ওই বিচারক এখনো বিদেশে পালিয়ে রয়েছেন।

উচ্চ আদালতের রায় রাজনৈতিকভাবে মোকাবেলা করার কোন সুযোগ নেই উল্লেখ করে আওয়ামী লীগের এ নেতা আরো বলেন, রাজনৈতিকভাবে তারেক রহমানের বিরুদ্ধে দেয়া রায়কে মোকাবেলা করার নামে দেশকে অস্থিতিশীল করার চেষ্টা করা হলে জনগণকে নিয়ে তার সমুচিত জবাব দেয়া হবে।

মাহবুব-উল-আলম হানিফ আজ বিকেলে রাজধানীর ধানমন্ডিস্থ আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার রাজনৈতিক কার্যালয়ে আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠনসমূহের সাথে এক যৌথসভা শেষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এক প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন।

জাতীয় শোক দিবস ও আগস্ট মাসের কর্মসূচী নির্ধারণের জন্য আওয়ামী লীগের এ যৌথ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

এ সময় আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ডা.দীপুমণি এমপি, কৃষি ও সমবায় বিষয়ক সম্পাদক ড.আব্দুর রাজ্জাক এমপি, আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম এমপি, খালিদ মাহমুদ চৌধুরী এমপি, দফতর সম্পাদক ড.আব্দুস সোবহান গোলাপ, স্বাস্থ্য সম্পাদক ডা.বদিউজ্জামান ভূঁইয়া ডাবলু, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক এডভোকেট আফজাল হোসেন, শ্রম বিষয়ক সম্পাদক হাবিবুর রহমান সিরাজ, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পদক শাহে আলম মুরাদ, উত্তরের সাধারণ সম্পাদক সাদেক খান, আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্য নির্বাহী কমিটির সদস্য আমিনুল ইসলাম, সুজিত রায় নন্দী, বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগ ও সাধারণ সম্পাদক এসএম জাকির হোসাইন সহ আওয়ামী লীগের অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকগণ উপস্থিত ছিলেন।

মাহবুব-উল-আলম হানিফ বলেন, বিএনপি নেতা তারেক রহমানকে আইনের মাধ্যমেই নিজেকে নির্দোষ প্রমাণ করতে হবে। রাজনৈতিকভাবে তা মোকাবেলার কোন সুযোগ নেই।

তারেক রহমান মুচলেকা দিয়ে বিদেশে চলে গেছেন উল্লেখ করে এ বিষয়ে আওয়ামী লীগের এ নেতা আরো বলেন, তিনি আদালতে হাজির হয়ে নিজেকে নির্দোষ দাবী করতে পারেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনা অনুযায়ী তৃনমূল পর্যায়ে আওয়ামী লীগের সন্ত্রাস ও জঙ্গীবাদ বিরোধী কমিটি গঠনের অগ্রগতি সর্ম্পকে জানতে চাইলে হানিফ বলেন, কেন্দ্রীয় ১৪ দল বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার মানুষকে নিয়ে এ কমিটি গঠন করছে। তাই একটু বেশি সময় লাগছে।

এ বিষয়ে আনুষ্ঠনিকভাবে গণমাধ্যমকে জানানো হবে বলে তিনি জানান।

মাহবুব-উল আলম হানিফ ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস ও পুরো আগস্ট মাসের কর্মসূচী ঘোষণা করেন।

এ বিষয়ে তিনি বলেন, ১ আগস্ট আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠনগুলোর উদ্যোগে ১২টা ১ মিনিটে মোমবাতি প্রজ্জলনের মাধ্যমে আগস্ট মাসের কর্মসূচী পালন শুরু করা হবে। সকালে কৃষকলীগের উদ্যোগে স্বেচ্ছায় রক্তদান কর্মসূচী পালন করা হবে।

তিনি বলেন, ৫ আগস্ট জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বড় ছেলে শেখ কামালের জন্মদিন পালন করা হবে। এদিন সকাল ৮ টায় ধানমন্ডিস্থ আবাহনী লিমিটেড’র মাঠে শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ করা হবে এবং ৮টায় বনানী কবরস্থানে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হবে।

তিনি বলেন, ৮ আগস্ট বঙ্গমাতা বেগম শেখ ফজিলাতুন্নেসা মুজিবের জন্মদিন উপলক্ষে মহিলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হবে এবং ৭ আগস্ট বাংলাদেশ ছাত্রলীগের উদ্যোগে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রী সমাবেশ অনুষ্ঠিত হবে।

১৫ আগস্ট প্রত্যুষে বঙ্গবন্ধু ভবনের সামনে জাতির পিতার প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হবে। সারাদিনব্যাপী মসজিদে মিলাদ মাহফিল ও মন্দির ও গীর্জায় প্রার্থনা অনুষ্ঠিত হবে এবং দুস্থদের মধ্যে খাবার বিতরণ করা হবে।

গোপালগঞ্জের টুঙ্গীপাড়ায় জাতির পিতার মাজারে সরকারী কর্মসূচী পালিত হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ওই কর্মসূচীতে যোগদান করবেন। আওয়ামী লীগের একটি প্রতিনিধিদল জাতির পিতার মাজারে শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন করবে।

১৭ আগস্ট দেশব্যাপী সিরিজ বোমা হামলা এবং ২১ আগস্ট ভয়াবহ গ্রেনেড হামলার বিরুদ্ধে কর্মসূচী পালন করা হবে। ২০০৫ সালের ১৭ আগস্ট দেশের ৬৩ জেলার ৫শ’ স্থানে সিরিজ হামলা এবং ২০০৪ সালের ২১ আগস্ট আওয়ামী লীগের সন্ত্রাস ও জঙ্গীবাদ বিরোধী জনসভায় গ্রেনেড হামলা চালানো হয়েছিল। এ হামলায় আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ হাসিনা অল্পের জন্য প্রাণে বেঁচে গেলেও আওয়ামী লীগের মহিলা বিষয়ক সম্পাদিকা আইভি রহমানসহ ২৪ জন আওয়ামী লীগের নেতা-কমী নিহত হন। আহত হন প্রায় কয়েকশত নেতা কর্মী।

মাহবুব-উল আলম হানিফ বলেন, ২৪ আগস্ট আইভি রহমানের মৃত্যুবার্ষিকী পালন করা হবে এবং ২৭ আগস্ট জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের মৃত্যুবার্ষিকী পালন করা হবে।

এর আগে মাহবুব-উল-আলমের সভাপতিত্বে এক সভা অনুষ্ঠিত হয়।