ব্রেকিং নিউজ

রাত ৪:৫৯ ঢাকা, শুক্রবার  ২১শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

ক্রিস হার্বাট

তবুও মুসলিমদের ঘৃণা করি না: ব্রিটিশ সৈন্য

“হ্যা, একজন মুসলমানের পাতা বোমাতেই আমার পা উড়ে গিয়েছে।“ ক্রিস হার্বাট এভাবেই শুরু করেছেন ফেসবুকে তার পোস্ট।

ইংল্যান্ডের বন্দর নগরী পোর্টস্‌মাউথের বাসিন্দা মি. হার্বাট ব্রিটিশ সেনাদলের সদস্য হয়ে যখন ইরাকের বন্দর নগরী বসরায় মোতায়েন ছিলেন তখন রাস্তার পাশে পেতে রাখা এক বোমায় গুরুতরভাবে আহত হন। এবং তার একটি পা কেটে ফেলতে হয়। সুস্থ হওয়ার পর বিভিন্ন ইসলাম-বিরোধী সংগঠন দলে টানার জন্য তাকে নানাভবে প্রলুব্ধ করার চেষ্টা করে। কিন্তু তা কোন ফল হয়নি।

নিজের ফেসবুক পাতায় লেখা ঐ পোস্টে ক্রিস হার্বাট লিখেছেন, যদিও তার আহত হওয়ার জন্য দায়ী একজন মুসলমান, তবুও এজন্য সব মুসলিমকে এ জন্য তিনি দোষ দেন না।

কারণ? তিনি লিখছেন, “আমার সাথে ব্রিটিশ বাহিনী উর্দি পরা একজন মুসলিম সহযোদ্ধাও সেদিন বোমা বিস্ফোরণে তার একটি হাত হারিয়েছেন, যে হেলিকপ্টারে করে আমাকে হাসপাতালে নেয়া হয়েছিল তার মেডিকেল কর্মকর্তা ছিলেন একজন মুসলিম, হাসপাতালে অপরেশন করে যে আমার জীবন রক্ষা করেছেন সে একজন মুসলমান ডাক্তার। দেশে ফেরার পর আমাকে স্বাভাবিক হতে সাহায্য করেছিলেন যারা তাদের মধ্যে একজন নার্স ছিলেন মুসলমান।“

“আমি জানি কাকে আমার ঘৃণা করা উচিত, আর কাকে নয়,“ তিনি লিখছেন, “দায়েস (জঙ্গী সংগঠন ইসলামিক স্টেট) কিংবা তালেবানের কর্মকান্ডের জন্য সব মুসলমানদের দায়ী করার অর্থ হলো (বর্ণবাদী সংগঠন) কেকেকে`র জন্য সব খ্রিস্টানদের দায়ী করা। তাই আপনার দৃষ্টিভঙ্গী আমার ওপর চাপিয়ে দেবেন না।“

এই পোস্টে একই সাথে মি. হার্বাট বর্ণনা করেন, কিছু কিছু শ্বেতাঙ্গের কাছ থেকে কিভাবে তিনি নিজেও নানা ধরনের গালাগালির শিকার হয়েছেন। বিবিসি