ব্রেকিং নিউজ

বিকাল ৫:৪৯ ঢাকা, রবিবার  ২৩শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

তনু হত্যা: আজও উত্তাল কুমিল্লা, অবরোধকারীদের নিয়ন্ত্রণে সড়ক

আজও উত্তাল কুমিল্লা। কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া কলেজের ছাত্রী ও নাট্যকর্মী সোহাগী জাহান তনু হত্যার বিচার দাবিতে নগরীর ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের নন্দনপুর এলাকায় অবরোধ করেছে বিক্ষোভকারীরা রবিবার বেলা সাড়ে ১১টা থেকে সড়ক নিয়ন্ত্রণে নিয়ে অবরোধ করে বিক্ষোভ করছেন।

রবিবার সকাল থেকে নগরীর বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠনের পক্ষ থেকে মিছিল নিয়ে নগরীর কান্দিরপাড়ে জড়ো হচ্ছেন। এরই মধ্যে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে কয়েকটি সংগঠন। এদিকে প্রতিবাদী ছাত্র ও বিভিন্ন সংগঠনসহ গণজাগরণ মঞ্চের স্থানীয় নেতা-কর্মীরা গণজাগরণ মঞ্চের রোর্ড মার্চ পৌঁছানোর জন্য অপেক্ষা করছে।

কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়, কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া সরকারি কলেজসহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী ছাড়াও কুমিল্লাস্থ মুরাদনগর ছাত্র পরিষদসহ বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের কর্মীরা ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের কুমিল্লা কোটবাড়ি-নন্দনপুর এলাকায় রাস্তায় আগুন ধরিয়ে বিক্ষোভ করে যাচ্ছে। এতে মহাসড়কে সকল প্রকার যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকায় উভয় পাশে শত শত যাত্রী ও পণ্যবাহী যানবাহন আটকা পড়েছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এরই মধ্যে ঘটনাস্থলে ছুটে এসেছেন সদর দক্ষিণ মডেল থানার ওসি প্রশান্ত পালসহ হাইওয়ে পুলিশের কর্মকর্তারা।

nirzaton14

এদিকে দুপুর ১২টার দিকে অবরোধস্থলে আসেন কুমিল্লা সদর আসনের এমপি আ.ক.ম বাহাউদ্দিন। এ সময় তিনি তনু হত্যাকারীদের অবিলম্বে গ্রেফতারের আশ্বাস দেন এবং অবরোধ তুলে নেয়ার আহবান জানান। পরে এমপি বাহাউদ্দিন নিহত তনুর সেনানিবাসের বাসায় গিয়ে তার পরিবারের সদস্যদের সমবেদনা জানাতে অবরোধস্থল ত্যাগ করেন। দুপুর ১টা এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত অবরোধ অব্যাহত ছিল।

জানা গেছে, ঢাকার শাহবাগ থেকে গণজাগরণ মঞ্চের রোডমার্চ কুমিল্লায় আসার পথে মহাসড়কের চট্টগ্রাম রোড, কাঁচপুর ব্রিজ এলাকা, কুমিল্লার দাউদকান্দি, গৌরীপুর, চান্দিনা, নিমসার বাজার ও ময়নামতি এলাকায় পথসভা করবে। পরে নগরীর অদূরে মহাসড়কের আলেখারচর এলাকায় স্থানীয় নেতা-কর্মীদের প্রতিবাদ সমাবেশে যোগ দেবেন গণজাগরণ মঞ্চের মুখপাত্র ডা. ইমরান এইচ সরকার ও রোডমার্চে অংশগ্রহণকারীগণ।

বিকালে কুমিল্লা মহানগরীর কান্দিরপাড় পূবালী চত্বরে প্রতিবাদী জনতার লংমার্চে বিক্ষোভকারীরা যোগ দেবেন।

উল্লেখ্য, গত ২০ মার্চ রাতে কুমিল্লা সেনানিবাসের বাসার অদূরে দুর্বৃত্তদের হাতে পাশবিক নির্যাতনের পরে খুন হন ক্যান্টনবোর্ডের ইয়ার হোসেনের মেয়ে কলেজ ছাত্রী তনু। বর্তমানে এ মামলাটি তদন্ত করছেন কুমিল্লা ডিবি। ঘটনার ৭ দিন অতিবাহিত হলেও এখনো এই হত্যাকান্ডের রহস্য বের করতে না পরায় আন্দোলনকারীরা বিচারের দাবিতে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। এ ঘটনায় বিচারের দাবিতে দেশ- বিদেশে প্রতিবাদ অব্যাহত আছে।