ব্রেকিং নিউজ

রাত ৯:১৮ ঢাকা, বৃহস্পতিবার  ২০শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

তনু হত্যার বিচারের দাবিতে হরতালে সড়ক অবরোধ, আটক ১১

কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া সরকারি কলেজের ইতিহাস বিভাগের শিক্ষার্থী ও নাট্যকর্মী সোহাগী জাহান তনুর খুনিদের গ্রেফতার ও বিচারের দাবিতে ডাকা অর্ধদিবস হরতালকে কেন্দ্র করে রাজধানীর শাহবাগ মোড় ও জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) সামনের সড়ক অবরোধ করেছেন শিক্ষার্থীরা।

জাবিতে সড়ক অবরোধকে কেন্দ্র করে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে কমপক্ষে ৩০ শিক্ষার্থী আহত হয়েছেন। এ সময় ১১ শিক্ষার্থীকে আটক করেছে পুলিশ।

সোমবার সকাল ৬টা থেকে বামপন্থী প্রগতিশীল ছাত্র জোট ও সাম্রাজ্যবাদবিরোধী ছাত্র ঐক্যের ডাকে সারা দেশে অর্ধদিবস হরতাল চলছে। দুপুর ১২টায় এ হরতাল শেষ হবে।

হরতালকে কেন্দ্র করে সকাল সাড়ে ৭টার দিকে শাহবাগ মোড়ের সড়কে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা অবস্থান নেয় এতে ওই এলাকায় যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়।

এদিকে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকের সামনে ঢাকা-আরিচা মহাসড়ক অবরোধ করে শিক্ষার্থীরা। এতে ওই এলাকায় যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। সড়কে অবস্থান নিয়ে শিক্ষার্থীরা তনু ও রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের শিক্ষক রেজাউল করিম হত্যার দাবিতে বিভিন্ন শ্লোগান দেন।

এসময় শিক্ষার্থীদের সঙ্গে পুলিশের ব্যাপক সংঘর্ষ হয়। এতে অন্তত ৩০ শিক্ষার্থী আহত হন। এ ঘটনায় পুলিশ ১১ জনকে আটক করে।

আটকের পর অবরোধকারী শিক্ষার্থীরা ক্যাম্পাসে ফিরে আসেন। তারা আটককৃতদের মুক্তির দাবিতে জাবির রেজিস্ট্রার ভবন ঘেরাও করেন। শিক্ষার্থীদের মুক্তি দেওয়া না হলে ঘেরাও কর্মসূচি চলবে বলে জানিয়েছেন তারা।

বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা জানান, তনু হত্যাকারীদের গ্রেফতারের দাবিতে সকাল ছয়টা থেকে ঢাকা-আরিচা মহাসড়ক অবরোধ করে রাখে প্রগতিশীল ছাত্রজোট। এ সময় মহাসড়কে কয়েক হাজার যানবাহন আটকা পড়ে। সকাল সাড়ে ৮টার দিকে পুলিশ অবরোধকারীদের ব্যানার কেড়ে নেয়। এক পর্যায়ে শিক্ষার্থী ও পুলিশ সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে।

পরে সকাল ১০টা থেকে পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এরপর যান চলাচল স্বাভাবিক হয়।

গত ২০ মার্চ কুমিল্লার ময়নামতি ক্যান্টনমেন্ট এলাকায় খুন কলেজছাত্রী ও নাট্যকর্মী তনু। এ ঘটনায় তনুর বাবা ক্যান্টনমেন্ট বোর্ডের কর্মচারী ইয়ার হোসেন

কুমিল্লার কোতোয়ালি মডেল থানায় অজ্ঞাতপরিচয় দুষ্কৃতকারীদের নামে হত্যা মামলা করেন।

এরপর খুনি শনাক্ত না হওয়ায় এবং ময়নাতদন্তে ধর্ষণের আলামত না পাওয়ায় এর সুষ্ঠু তদন্ত নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করে বাম ছাত্র সংগঠনগুলো গত ৭ এপ্রিল স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ঘেরাও করে।

ওই কর্মসূচি থেকেই ২৫ এপ্রিল অর্ধদিবস হরতালের ঘোষণা দেয়া হয়।