ব্রেকিং নিউজ

বিকাল ৩:৪৭ ঢাকা, সোমবার  ২৪শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

‘তনুকে ধর্ষণের আলামত পেয়েছে’

কুমিল্লার কলেজছাত্রী সোহাগী জাহান তনুর শরীর থেকে নেওয়া নমুনার ডিএনএ পরীক্ষা করে ধর্ষণের আলামত পাওয়া গেছে বলে জানিয়েছে মামলার তদন্তকারী সংস্থা সিআইডি।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা সিআইডির কুমিল্লার বিশেষ পুলিশ সুপার নাজমুল করিম খান বলেন, ডিএনএ পরীক্ষার রিপোর্টে মোট চারজনের ডিএনএ প্রোফাইলের কথা বলা হয়েছে।

এর মধ্যে একটি প্রোফাইল তনুর রক্তের, যেটি তাঁর দাঁত থেকে করা ডিএনএ প্রোফাইলের সঙ্গে মিলে গেছে।

মি. খান বলছেন, অপর তিনটি প্রোফাইল তিনজন পুরুষের, যাতে তিনজনের স্পার্মাটোজোয়া বা বীর্যের আলামত পাওয়া গেছে। ফলে সিআইডি সন্দেহ করছে হত্যার আগে তনুকে ধর্ষণ করা হয়েছিল।

গত ২০শে মার্চ কুমিল্লার সরকারি ভিক্টোরিয়া কলেজের ইতিহাস বিভাগের শিক্ষার্থী ও নাট্যকর্মী সোহাগী জাহান তনু নিহত হন।

৪ঠা এপ্রিল প্রথম ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন দেওয়া হয়, যাতে বলা হয়, ময়নাতদন্তে ধর্ষণের কোনও আলামত পাওয়া যায়নি এবং কেন তনু মারা গেছে এ বিষয়েও নির্দিষ্ট করে কিছু বলতে পারেনি প্রথম ময়নাতদন্তকারী কর্মকর্তা।

এরপর আদালতের নির্দেশে কবর থেকে তনুর লাশ উত্তোলন করে ৩০শে মার্চ দ্বিতীয় দফা ময়নাতদন্ত করা হয়।

কিন্তু এখনো দ্বিতীয় ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন দেয়নি মেডিকেল বোর্ড। বিবিসি বাংলা