ব্রেকিং নিউজ

সকাল ৮:৪৫ ঢাকা, মঙ্গলবার  ১৬ই অক্টোবর ২০১৮ ইং

দুদক চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ
দুদক চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ, ফাইল ফটো

তদবিরবাজি-অনৈতিক প্রভাবই বড় দুর্নীতি

দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ বলেছেন, তদবিরবাজি-অনৈতিক প্রভাবই বড় দুর্নীতি। প্রভাবশালী ও প্রভাবহীন বলতে কিছুই নেই, প্রভাবশালীদেরও ছাড় দেবে না কমিশন।

তিনি বলেন, প্রভাবশালীদেরও আইনের আওতায় এনে সাজা দেয়া হয়েছে। এ ধারা অব্যাহত রাখা হবে হবে বলেও জানান তিনি।

দুদক চেয়ারম্যান আজ কমিশনের প্রধান কার্যালয়ে সরকারি বিভিন্ন প্রকৌশল দপ্তরের শীর্ষ কর্মকর্তাদের সাথে মতবিনিময়কালে এ কথা বলেন।

প্রকল্প নির্বাচন ও বাস্তবায়নে তদবির ও প্রভাবমুক্ত থেকে কাজ করতে প্রকৌশলীদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে দুদক চেয়ারম্যান বলেন, তদবিরবাজি এবং অনৈতিক প্রভাবই সবচেয়ে বড় দুর্নীতি। আপনারা পদ্ধতি অনুসরণ করে কাজ করবেন। প্রভাব এবং তদবিরকে আমলে নিবেন না। যদি কোনো প্রভাবশালী আপনাদের কাছে অনৈতিক কিছু দাবি করে, তাহলে দুর্নীতি দমন কমিশনকে জানাবেন।

তিনি বলেন, ‘আমরা ইলেকট্রনিক টেন্ডার করি, আবার এস্টিমেটের গোপনীয় তথ্য বিশেষ ব্যক্তিকে জানিয়ে দেই। এই অবস্থা চলতে পারে না। দেশকে দুর্নীতির করাল গ্রাস থেকে মুক্ত করতে হলে পদ্ধতিগত উন্নয়ন করতে হবে।’

মানসিকতার পরিবর্তন ছাড়া দুর্নীতি দমন সম্ভব নয় উল্লেখ করে দুদক চেয়ারম্যান বলেন, প্রকৌশল সংস্থাগুলো দেশের বাজেটের ৮০ ভাগ অর্থ ব্যয় করে থাকেন। এই ব্যয় হতে হবে স্বচ্ছ এবং দুর্নীতিমুক্ত।

তিনি বলেন. সবাই যদি আর্থিক বিষয়ে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতার মধ্যে না আসেন, তাহলে দেশ এগোবে না এবং মানুষও আমাদের বিশ্বাস করবে না।

চেয়ারম্যান বলেন, প্রকল্পে কনসালটেন্ট রাখা হয় কিন্তু উপকারভোগী জনগণের সাথে আলোচনা করা হয় নাÑ এটা কেমন কথা। প্রকল্প গ্রহণ, এস্টিমেট প্রণয়ন ও বাস্তবায়ন প্রতিটি স্তরেই উপকারভোগীদের সাথে কনসাল্টেশনের ব্যবস্থা থাকা উচিত।

দুদক কমিশনার এ এফ এম আমিনুল ইসলাম, সচিব ড. মো. শামসুল আরেফিন, মহাপরিচালক মো. জাফর ইকবাল, রাজউক চেয়ারম্যান মো. আবদুর রহমান, বিআইডব্লিইটিএ’র প্রধান প্রকৌশল মো. মঈদুল ইসলাম, সিভিল এভিয়েশনের প্রধান প্রকৌশলী শুভেন্দু বিকাশ সোস্বামী, প্রধান স্থপতি কাজী গোলাম নাসের, পাওয়ার সেলের মহাপরিচালক মোহাম্মদ হোসেন, বিআইডব্লিউটিসি’র চেয়ারম্যান মোহাম্মদ মফিজ্জল হক, হাইটেক পার্ক অথরিটির এমডি হোসনে আরা বেগম, সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী মো. আবুল কাশেম ভুইয়া প্রমূখ এ সময় বক্তব্য রাখেন ।