Sheersha Media

ব্রেকিং নিউজ

বিকাল ৩:৫২ ঢাকা, বুধবার  ১৪ই নভেম্বর ২০১৮ ইং

ঢাকা,যশোর ও কুমিল্লায় ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত: ৩

Like & Share করে অন্যকে জানার সুযোগ দিতে পারেন। দ্রুত সংবাদ পেতে sheershamedia.com এর Page এ Like দিয়ে অ্যাক্টিভ থাকতে পারেন।

যশোর, কুমিল্লা, রাজধানীতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সঙ্গে কথিত ‘বন্দুকযুদ্ধে’ তিন যুবক নিহত হয়েছেন। নিহতরা নিজ নিজ এলাকার সন্ত্রাসী এবং ৩ জনের মধ্যে ২ জনের বিরুদ্ধেই হত্যাসহ একাধিক মামলা আছে দাবি আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর।

শনিবার রাতে যশোরে র‌্যাবের সঙ্গে কথিত ‘বন্দুকযুদ্ধে’ রাজু ওরফে ভাইপো রাজু (৩৬) এবং কুমিল্লায় পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ কালা স্বপন (৩৯) নিহত হন। র‌্যাব জানায়, শনিবার রাতে রাজুকে আটকের পর ভোররাতে তাকে নিয়ে অস্ত্র উদ্ধারে যায় র‌্যাব। ভোর ৫টার দিকে শহরতলীর মড়লিতে যশোর-খুলনা মহাড়কের পাশে ইমাম পেট্রোল পাম্পের বিপরীতে একটি ইটভাটার কাছে পৌঁছালে রাজুর সহযোগীরা র‌্যাবকে লক্ষ্য করে গুলি চালায়। এসময় র‌্যাবও গুলি করে। উভয় পক্ষে গুলি বিনিময়কালে পালাতে গিয়ে নিজের সহযোগীদের গুলিতে রাজু নিহত হন। ঘটনাস্থল থেকে দুটি আগ্নেয়াস্ত্র ও দুই রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়েছে। নিহত রাজু যশোর শহরের গাড়িখানা রোড এলাকার আজিবর রহমানের ছেলে। তার বিরুদ্ধে যশোরের সাবেক পিপি এ জেড এম ফিরোজের ছেলে অর্নব হত্যা মামলাসহ একাধিক মামলা রয়েছে।

এদিকে কুমিল্লা সদর দক্ষিণ থানা জানায়, শনিবার সকালে সদর কোর্টবাড়ি এলাকা থেকে স্বপনকে গ্রেফতার করা হয়। রাত দেড়টার দিকে তাকে নিয়ে অস্ত্র উদ্ধারে বেরোলে ভাটপাড়া এলাকায় পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে স্বপনের সহযোগীরা। এসময় পুলিশও পাল্ট গুলি ছোঁড়ে। পরে স্বপনের গুলিব্ধি লাশ উদ্ধার করা হয়। নিহত স্বপন উপজেলার পদুয়ারবাজার বিশ্বরোড এলাকার উত্তর রামপুর গ্রামের বাসিন্দা। তিনি যুবলীগ নেতা মোস্তাক হত্যাসহ ২৮ টি মামলার আসামি। স্বপনের লাশ উদ্ধার করে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে।

রাজধানীর আগারগাঁওয়ে পুলিশের কথিত ‘বন্দুকযুদ্ধে’ জসিম উদ্দিন নামে এক শিবির নেতা নিহত হয়েছেন। রোববার ভোররাতে এ ঘটনা ঘটে। নিহত জসিম ছাত্রশিবিরের নেতা বলে দাবি করেছে পুলিশ। তার বাবার নাম আব্দুর রাজ্জাক। পুলিশ বলছে, শনিবার শ্যামলীতে পুলিশ সার্জেন্টের ওপর ককটেল হামলার অভিযোগে জসিমসহ ৪জনকে আটক করা হয়। রোববার ভোররাতে ডিবি ও পুলিশের একটি যৌথ টিম তালতলা ডাম্পিং স্টেশনের কাছে আটকৃতদের নিয়ে অভিযানে গেলে দুর্বত্তরা তাদের ওপর গুলি চালায়। পুলিশ পাল্টা গুলি চালালে দুই পক্ষের গোলাগুলির মধ্যে পড়ে জসিম মারা যায়।