ব্রেকিং নিউজ

সকাল ৬:৫১ ঢাকা, বুধবার  ১৯শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

ইংরেজি দৈনিক দ্য ডেইলি স্টার সম্পাদক মাহফুজ আনাম

ডেইলি স্টার সম্পাদকের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহ মামলা তদন্তের নির্দেশ

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিরুদ্ধে জরুরি অবস্থার সময় দুর্নীতির মিথ্যা সংবাদ প্রকাশের অভিযোগে ইংরেজি দৈনিক দ্য ডেইলি স্টার সম্পাদক মাহফুজ আনামের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহ মামলার আবেদন সরকারের অনুমোদন নিয়ে তদন্ত করতে বলেছেন আদালত।

আদালত রাজধানীর কোতোয়ালি থানাকে এ নির্দেশ দিয়ে আগামী ২৮ মার্চ তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করতে বলেছেন।

বৃহস্পতিবার দুপুরে ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট হাকিম স্নিগ্ধা রানী চক্রবর্তী এ আদেশ দেন।

এর আগে সকাল সাড়ে ১১টার দিকে মাহফুজ আনামের বিরুদ্ধে দণ্ডবিধির ১২৩ (ক), ১২৪ (ক), ৫০০ ও ৫০১ ধারায় রাষ্ট্রদ্রোহ মামলার আবেদন করেন আইনজীবী মোস্তাফিজুর রহমান দুলাল।

তিনি ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৯-এর সহকারী সরকারি কৌঁসুলি (এপিপি)।

মামলার আবেদনে দুলাল অভিযোগ করেন, ১ / ১১-এর সময় আওয়ামী লীগের রাজনীতিকে নেতৃত্ব-শূন্য করার হীন প্রচেষ্টায় একটি এজেন্সির প্রেসক্রিপশন বাস্তবায়নে গণতন্ত্রবিরোধী শক্তিকে ক্ষমতায় অধিষ্ঠিত করার জন্য মাহফুজ আনাম তার সম্পাদিত পত্রিকা দ্য ডেইলি স্টারে মিথ্যা ও বিকৃত তথ্য প্রকাশ করেন; যা প্রত্যক্ষ রাষ্ট্রদ্রোহিতার শামিল।

আবেদনে আরও বলা হয়, আসামি এ ধরনের হলুদ সাংবাদিকতা করে মিথ্যা, বানোয়াট ও বিকৃত তথ্য প্রকাশ করে স্বাধীন বাংলাদেশের রাজনীতিকে অস্থির করেছেন।

আবেদন পাওয়ার পর আদালত মোস্তাফিজুর রহমান দুলালের জবানবন্দি রেকর্ড করেন।

ঘটনার গুরুত্ব ও স্পর্শকাতরতা বিবেচনা করে এই অভিযোগের সত্যতা যাচাই সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা আবশ্যক মন্তব্য করে আদালত, ফৌজদারি কার্যবিধির ১৯৬ ধারা মোতাবেক সরকারের অনুমোদন সাপেক্ষে পরিদর্শক পদমর্যাদার নিচে নয় এমন কর্মকর্তা দিয়ে তদন্ত করে আগামী ২৮ মার্চ প্রতিবেদন দিতে বলেন।

উল্লেখ্য, গত ৩ ফেব্রুয়ারি ডেইলি স্টারের ২৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে একটি বেসরকারি টিভিতে পত্রিকাটির সম্পাদক মাহফুজ আনাম বলেন, ২০০৭-০৮ সালে সেনাসমর্থিত তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সময় সেনা গোয়েন্দা সংস্থা ডিজিএফআইয়ের দেয়া বিভিন্ন দুর্নীতির খবর যাচাই না করেই তারা ছেপেছিলেন।

এ সময় মাহফুজ আনাম জানান, যাচাই না করে এ ধরনের খবর ছাপা তার সাংবাদিকতা জীবনের সবচেয়ে বড় ভুল কাজ ছিল।

এরপর প্রধানমন্ত্রীর তথ্য-প্রযুক্তি উপদেষ্টা ও তার ছেলে সজীব ওয়াজেদ জয় রাষ্ট্রদ্রোহিতার অভিযোগে মাহফুজ আনামকে গ্রেফতরের দাবি জানান।

এরপর গত রোববার জাতীয় সংসদ অধিবেশনে সাত জন সংসদ সদস্য মাহফুজ আনামের বিচার দাবির পাশাপাশি ডেইলি স্টার বন্ধের দাবি জানান।

এর দু’দিন পর মঙ্গলবার লক্ষ্মীপুরে মাহফুজ আনামের বিরুদ্ধে ৫০ কোটি টাকার মানহানির মামলা করেছেন জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি চৌধুরী মাহমুদ্দুনবী সোহেল এবং খুলনায় ১০০ কোটি টাকার মানহানি মামলা করেছেন জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মুশফিকুর রহমান সাগর।