ব্রেকিং নিউজ

বিকাল ৩:৩২ ঢাকা, মঙ্গলবার  ২৫শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

“ডিজিটাল বাংলাদেশের সাথে যুক্ত হলো অবহেলিত দহগ্রাম-অঙ্গরপোতার মানুষ”

ডিজিটাল বাংলাদেশের সাথে যুক্ত হলো ৬৮ বছরের বঞ্চণার শিকার লালমনিরহাটের বিলুপ্ত ছিটমহল দহগ্রাম-অঙ্গরপোতার মানুষ। তারা আজ প্রবেশ করলেন থ্রিজি যুগে। বুধবার দুপুরে গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এ থ্রিজি সেবার উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভিডিও কনফারেন্সে দহগ্রামে কথা বলেন সেখানকার বাসিন্দাদের সঙ্গে। এ সময় দহগ্রামে উপস্থিতি ছিলেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম, স্থানীয় সংসদ সদস্যসহ অন্যান্য কর্মকর্তারা।
দেশের প্রায় সব সেবামূলক কাজ এখন মোবাইল লাইনে সম্পন্ন হচ্ছে উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, অবহেলিত দহগ্রাম-অঙ্গরপোতার মানুষ আজ নতুন যুগে প্রবেশ করেছেন। অনেক উন্নত দেশ যা পারে না বাংলাদেশের মানুষ তা পারে। বাংলাদেশের মানুষ অসাধ্যকে সাধন করেছে।
তিনি বলেন, দেশে এখন চার কোটি ৯০ লাখ মানুষ ইন্টারনেট ব্যবহার করছে, ১৬ কোটি মানুষের দেশে ১১ কোটি সিম কার্ড রয়েছে। তিনি আরো বলেন, দেশের প্রায় আট হাজার পোস্ট অফিসকে ডিজিটাল করা হচ্ছে এবং সাড়ে তিন হাজার ইতোমধ্যে হয়ে গেছে বলে জানান তিনি।
দহগ্রাম আঙ্গরপোতার উন্নয়ন সম্পর্কে শেখ হাসিনা বলেন, সেখানে আমরা  সুপেয় পানির ব্যবস্থ‍া করেছি। প্রতি মাসে বিনা পয়সায় চিকিৎসা দিতে নামকরা ডাক্তাররা যান। যোগাযোগ সহজ করতে তিস্তার উপর ব্রিজ করেছি।
কুড়িগ্রাম, লালমনিরহাটের মঙ্গা সম্পর্কে তিনি বলেন, এ অঞ্চলের মঙ্গা দূর করেছে আওয়ামী লীগ সরকার। কুড়িগ্রাম, লালমনিরহাটকে এখন আর কেউ মঙ্গাপীড়িত এলাকা বলে না।