Sheersha Media

ব্রেকিং নিউজ

সকাল ৭:২০ ঢাকা, বুধবার  ১৪ই নভেম্বর ২০১৮ ইং

কন্ডোলিজা রাইস
কন্ডোলিজা রাইস: "ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রেসিডেন্ট হওয়া উচিত নয়"

‘ট্রাম্পের প্রেসিডেন্ট হওয়া উচিত নয়’- কন্ডোলিজা

নারীদের প্রতি অশ্লীল মন্তব্য করায় সিনিয়র আরো কয়েকজন রিপাবলিকান নেতা ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রতি সমর্থন তুলে নিয়েছেন।

শুক্রবার সেই মন্তব্য ফাঁস হবার পর বেশ কয়েকজন রিপাবলিকান নেতা বলেছেন যে তারা ট্রাম্পকে ভোট দেবেন না।

তবে মি. ট্রাম্প বলেছেন তিনি কখনোই নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়াবেন না এবং তার সমর্থদের হতাশ করবেন না।

মি. ট্রাম্প নারীদের গায়ে হাত দেয়া এবং চুমু দেয়ার বিষয়ে বড়াই করছেন এমন একটি অডিও ফাঁস হবার পর থেকে তিনি চাপের মুখে রয়েছেন। অডিওটি ২০০৫ সালে ধারণ করা হয়।

নতুন যারা মি. ট্রাম্পের প্রতি সমর্থন তুলে নিয়েছেন তাদের মধ্যে আছেন সাবেক রিপাবলিকান প্রেসিডেন্ট প্রার্থী জন ম্যাককেইন এবং সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী কন্ডোলিজা রাইস। খবর বিবিসির।

মি. ম্যাককেইন বলেন, মি. ট্রাম্পের মন্তব্যের কারণে “তার প্রতি শর্তসাপেক্ষে সমর্থন দেয়াও অসম্ভব হয়ে দাঁড়িয়েছে”।

মিস রাইস বলেন “যথেষ্ট! ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রেসিডেন্ট হওয়া উচিত নয়। তার সরে দাঁড়ানো উচিত”।

বেশ কয়েকজন রিপাবলিকান নেতা বলেছেন যে তারা ট্রাম্পের পরিবর্তে তার ভাইস প্রেসিডেন্ট প্রার্থী মাইক পেন্সকে ভোট দিতে চান।

এর আগে মার্কিন কংগ্রেসের স্পিকার পল রায়ান ডোনাল্ড ট্রাম্পকে দেয়া একটি আমন্ত্রণ প্রত্যাহার করে নেন। তিনি বলেন, মি. ট্রাম্পের মন্তব্য শুনে তিনি “অসুস্থবোধ করছেন”।

আগেই মিট রমনি, জন কেসিক, জেব বুশ, লিন্ডসে গ্রাহামসহ অনেক সিনিয়র রিপাবলিকান নেতা ট্রাম্পকে ভোট দেবেন না বলে জানিয়েছেন।

২০০৫ সালের সেই অডিওতে মি. ট্রাম্পকে বলতে শোনা যায় যে, তারকা হলে “নারীদেরকে যেকোন কিছু করা যায়”, এমনকি “যৌনাঙ্গেও হাত দেয়া যায়” বলেন মি . ট্রাম্প।