বন্দুকযুদ্ধ
নমুনা ফটো

টেকনাফে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ৬ মামলার আসামি নিহত

কক্সবাজারের টেকনাফ উপজেলায় আটকের ৪ ঘণ্টা পর পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ আবদুল মালেক (৩৮) নামে ৬ মামলার আসামি এক যুবক নিহত হয়েছেন।

পুলিশের দাবি, নিহত আবদুল মালেক ইয়াবা ব্যবসায়ী। তার নামে টেকনাফ থানায় অস্ত্র ও মাদকসহ ছয়টি মামলা রয়েছে। আবদুল মালেক টেকনাফের নতুন পল্লানপাড়ার মৃত মকবুল আহমদের ছেলে।

বুধবার দিবাগত রাত পৌনে ১টার দিকে টেকনাফের নেঙ্গুরবিল এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

ঘটনাস্থল থেকে দুটি দেশীয় তৈরি এলজি, ১৩ রাউন্ড কাতুজ, ২১টি গুলির খোসা ও পাঁচ হাজার ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করেছে পুলিশ।

টেকনাফ মডেল থানার ওসি প্রদীপ কুমার দাশ গণমাধ্যমকে জানান, রাত সাড়ে ৯টার দিকে উপজেলার বাস টার্মিনাল এলাকা থেকে আবদুল মালেককে আটক করে পুলিশ। এ সময় আবদুল মালেকের তথ্যে ভিত্তিতে তাকে নিয়ে টেকনাফের নেঙ্গুরবিল এলাকায় ইয়াবা ও অস্ত্র উদ্ধারে গেলে একদল মাদক ব্যবসায়ী পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি চালায়।

আত্মরক্ষার্থে পুলিশও পাল্টা গুলি চালায়। এ সময় আবদুল মালেক গুলিবিদ্ধ হয়।

তাকে উদ্ধার করে প্রথমে টেকনাফ উপজেলা হাসপাতাল নিয়ে যাওয়া হয়। পরে অবস্থার অবনতি হলে আবদুল মালেককে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। সেখানে নেয়ার সময় তার মৃত্যু হয়।

নিহত আবদুল মালেকের বিরুদ্ধে অস্ত্র ও মাদকসহ ৬টি মামলা রয়েছে। নিহতের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতালে মর্গে রাখা হয়েছে। এ ঘটনায় তিন পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন বলে পুলিশ জানায়।