ব্রেকিং নিউজ

সকাল ৬:৫৭ ঢাকা, মঙ্গলবার  ১৯শে জুন ২০১৮ ইং

“টিআইবির পর্যবেক্ষনকে চ্যালেঞ্জ করতে পারেননি শাসকদলের নেতারা”

দশম জাতীয় সংসদ নিয়ে ট্রান্সপ্যারেন্সি ইন্টারন্যাশনালের পর্যবেক্ষনের সঙ্গে একমত’ পোষন করেছে বিএনপি। দলের মুখপাত্র আসাদুজ্জামান রিপন বলেন, টিআইবির পর্যবেক্ষনকে চ্যালেঞ্জ করতে পারেননি শাসকদলের নেতারা। সংসদকে পুতুল নাচের ‘নাট্যশালা’ বলে ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি) যে ব্যাখ্যা দিয়েছে তা  অতিকিঞ্চিত মাত্র।

মঙ্গলবার বিকালে সংবাদ সম্মেলনে দলের আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক আসাদুজ্জামান রিপন এ মন্তব্য করেন।
রিপন বলেন, টিআইবর ভাষায় জাতীয় সংসদ পুতুল নাচের নাট্যশালায় পরিণত হওয়ায় এবং এখানে কোনো প্রকৃত  বিরোধী দল না থাকায় প্রতিষ্ঠানটির কঠোর সমালোচনা করেছেন শাসকদলের নেতা মাহবুব-উল-আলম হানিফ ও দশম সংসদের চিফ হুইপ। কিন্তু টিআইবির পর্যবেক্ষনকে তারা চ্যালেঞ্জ করতে পারেননি। বলতেও পারেননি যে টিআইবি অসত্য পর্য়বেক্ষন দিয়েছেন।বরং তারা এই সংসদ নিয়ে সত্য উন্মোচন করায় তাদেরকে বিরোধী দলের এজেন্ট বলে অসৌজন্যমূলক মন্তব্য করেছেন।
তিনি বলেনর, আমাদের দল মনে করে, টিআইবির পর্যবেক্ষন অতিকিঞ্চিত মাত্র। আমরা মনে করি সত্য যতই কঠিন হউক না কেনো, সরকারের উচিত্ হবে প্রকৃত বাস্তবতার মুখোমুখি হওয়া এবং দশম সংসদের নির্বাচন নিয়ে দেশ-বিদেশের পর্যবেক্ষনগুলো মেনে নিয়ে সেই সংকট থেকে উত্তরণের পথ খোঁজা।
আসাদুজ্জামান রিপন বলেন, আমরা মনে করি, দশম সংসদে ফেক অপোজিশন নিয়ে খুঁড়িয়ে খুঁড়িয়ে চলার কারণে দেশে এখন কোনো সুশাসন নেই, জবাবদিহিতাও নেই। সেকারণে সরকারি দলের লোকেরা দেশে নৈরাজ্য বিস্তার করেছে, তাদের লাগাম টানার শক্তি সরকার হারিয়ে ফেলেছে। এইরকম উদ্ভুত পরিস্থিতে অসংখ্য এমপি লিটন, আবদুর রহমান বদিদের জন্মের পাশাপাশি ফ্রাংকেনস্টাইল দানবরাও শক্তিমান হয়ে উঠেছে যা সমাজ রাজনীতির জন্য বড়ই অশনিসংকেত।
এ পরিস্থিতিতে সংকট মোকাবিলায় জাতীয় সংলাপের দাবি জানান তিনি।
সোমবার ব্রাক্ষনবাড়ীয়া জেলা সভাপতি, সাধারণ সম্পাদকসহ ৪৩ জন, নাটোর ও নারায়নগঞ্জের আটক নেতা-কর্মীদের মুক্তির দাবি জানান রিপন।
সংবাদ সম্মেলনে রিপনের পাশে ছিলেন, সহ আইন বিষয়ক সম্পাদক নিতাই রায় চৌধুরী, কেন্দ্রীয় নেতা আবদুল লতিফ জনি, শামীমুর রহমান শামীম, তকদির হোসেন জসিম প্রমূখ উপস্থিত ছিলেন।