Sheersha Media

ব্রেকিং নিউজ

রাত ৩:৩৩ ঢাকা, বুধবার  ১৪ই নভেম্বর ২০১৮ ইং

টাঙ্গাইল হানাদার মুক্ত দিবস আজ

আজ ১১ ডিসেম্বর টাঙ্গাইল মুক্ত দিবস। ১৯৭১ সালের এই দিনে মুক্তিযোদ্ধারা পাক হানাদার বাহিনীর কবল থেকে টাঙ্গাইলকে মুক্ত করে। উত্তোলন করেন স্বাধীন বাংলাদেশের পতাকা।
বীর মুক্তিযোদ্ধা ও টাঙ্গাইল জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি মির্জা তোফাজ্জল হোসেন মুকুল বাসসকে বলেন, ১৯৭১ সালের মার্চ মাসের শুরুতেই টাঙ্গাইল জেলা স্বাধীন বাংলা গণমুক্তি পরিষদ গঠন করা হয়। চলতে থাকে মুক্তিযুদ্ধের প্রশিক্ষণ। ২৬ মার্চ থেকে গ্রামে গ্রামে যুবকরা সংগঠিত হতে থাকে। ৩ এপ্রিল প্রথম পাকহানাদার বাহিনী মুক্তিযোদ্ধাদের অবরোধ ভেঙ্গে টাঙ্গাইল শহরে প্রবেশ করে। মুক্তিযোদ্ধারা স্থান পরিবর্তন করে নতুন করে অস্ত্র সংগ্রহ ও সংগঠিত হতে থাকে। অল্প দিনের মধ্যেই কাদের সিদ্দিকীর নেতৃত্বে গড়ে উঠে বিশাল কাদেরিয়া বাহিনী। শুরু হয় বিভিন্ন স্থানে হানাদার বাহিনীর সাথে যুদ্ধ।
তিনি বলেন, খন্দকার আব্দুল বাতেন বাহিনীর নেতৃত্বে গঠিত “বাতেন বাহিনী” অনেক জায়গায় হানাদারদের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করে। চারদিক থেকে আক্রমনে দিশেহারা হয়ে পড়ে পাক বাহিনী। ১০ ডিসেম্বর বিকেলে টাঙ্গাইল শহরের উত্তরে পৌলিতে মিত্রবাহিনীর প্রায় ২ হাজার সেনা অবতরন করায় হানাদাররা ঢাকার দিকে অগ্রসর হয়। ১১ ডিসেম্বর ভোর থেকে মুক্তিযোদ্ধারা শহরে প্রবেশ করলে টাঙ্গাইল শহর সম্পূর্ণ হানাদার মুক্ত হয়।
১১ ডিসেম্বর গৌরবদীপ্ত স্বর্ণালী দিনটিকে স্মরণীয় করে রাখতে প্রতি বছরের মতো এবারও টাঙ্গাইল মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, কাদেরিয়া বাহিনী, জেলা প্রশাসন, কৃষক শ্রমিক জনতা লীগ পৃথক উদ্যোগে স্থানীয় শহীদ মিনার প্রাঙ্গন ও শহীদ স্মৃতি পৌর উদ্যানে বিভিন্ন কর্মসুচি পালন করবে।