Press "Enter" to skip to content

টাকা উদ্ধারের ঘটনায় বিএনপি প্রার্থী অপু গ্রেফতার

একাদশ সংসদ নির্বাচনের আগে রাজধানীর মতিঝিলে ৮ কোটি টাকা উদ্ধার মামলার আসামি শরীয়তপুর-৩ আসনে বিএনপি প্রার্থী মিয়া নুরুদ্দীন অপু গ্রেফতার হয়েছেন। শুক্রবার রাজধানীর ইউনাইটেড হাসপাতাল থেকে তাকে গ্রেফতার করে র‌্যাব-১।

সূত্রে জানা গেছে, মিয়া নুরুদ্দীন অপু ওই হাসপাতালের ৫০৩ নম্বর কেবিনে চিকিৎসাধীন।

শরীয়তপুর-৩ আসনে বিএনপি প্রার্থী হিসেবে লড়ে হেরে যান মিয়া নুরুদ্দীন অপু। এছাড়া তিনি বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের এপিএস।

এর আগে গত ২৫ ডিসেম্বর মতিঝিলের সিটি সেন্টারের ২৭ তলায় ইউনাইটেড কর্পোরেশন নামে একটি প্রতিষ্ঠানে অভিযান চালিয়ে ৮ কোটি ১৫ লাখ টাকাসহ তিনজনকে গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন- ব্যবসায়ী আলী হায়দার, তিনি আমদানি-রফতানি ও ঠিকাদারি কোম্পানি ইউনাইটেড করপোরেশনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক। অন্যরা হলেন- গুলশানের আমেনা এন্টারপ্রাইজের জয়নাল ও ইউনাইটেড কর্পোরেশনের অফিস ব্যবস্থাপক আলমগীর হোসেন। এদের মধ্যে জয়নাল একসময় হাওয়া ভবনের সাবেক কর্মচারী ছিলেন।

মতিঝিলে সিটি সেন্টারে অতিসম্প্রতি এক সংবাদ সম্মেলন করে র‌্যাবের মহাপরিচালক বেনজীর আহমেদ জানিয়েছিলেন, নির্বাচনকে প্রভাবিত করার চেষ্টায় ছিলেন আটকরা। যেখানে যেখানে টাকা গেছে সেখানেই নির্বাচনী সহিংসতা ঘটেছে।

নির্বাচনের আগে দুই মাসে প্রায় দেড় শ কোটি টাকা বাংলাদেশের বিভিন্ন স্থানে পাঠানো হয়েছে বলে জানান র‌্যাব মহাপরিচালক। তিনি বলেন, সবশেষ মিয়া নুরুদ্দীন অপুকে সাড়ে তিন কোটি টাকা পাঠানো হয়। টাকা পাঠানোর তথ্যপ্রমাণ পেয়েছে র‌্যাব। এছাড়া চট্টগ্রামসহ আরও কয়েকটি জেলায় টাকা পাঠানো হয়েছে।

টাকার উৎস সম্পর্কে বেনজীর বলেন, টাকা এসেছে দুবাই থেকে হুন্ডি ও ব্যাংকের মাধ্যমে। এ ছাড়া স্থানীয় পর্যায় থেকে সংগ্রহ করা হয়েছে।

Mission News Theme by Compete Themes.