ব্রেকিং নিউজ

সকাল ৮:৫০ ঢাকা, বুধবার  ২৪শে অক্টোবর ২০১৮ ইং

টরোন্টোতে বন্দুকধারীর গুলি
এলোপাতাড়ি গুলি চালানোর পর বন্দুকধারী নিজেকেই নিজে হত্যা করেছেন। ছবি: এএফপি

টরোন্টোয় গুলিতে আহত ১৩, বন্দুকধারীসহ নিহত ২

কানাডার টরোন্টোতে এলোপাতাড়ি গুলিতে বন্দুকধারীসহ দুই জন নিহত হয়েছেন। এতে আহত হন আরও ১৩ জন। স্থানীয় সময় রোববার পূর্ব কানাডিয়ান শহরে এ ঘটনা ঘটেছে বলে পুলিশ জানিয়েছে।

টুইটারে নিজেদের নিউজ ফিডে পুলিশ বলেছে, স্থানীয় সময় রোববার রাত ১০টায় ব্যস্ত গ্রিকটাউন শহরের পার্শ্ববর্তী এলাকায় ঘটনাটি ঘটে। এলোপাতাড়ি গুলি চালানোর পর বন্দুকধারী নিজেকেই নিজে হত্যা করেছেন।

গুলিতে এক নারী নিহত হয়েছেন। আহত একটি মেয়েশিশুর অবস্থা আশঙ্কজনক বলে জানায় পুলিশ।

টরোন্টো পুলিশপ্রধান মার্ক স্যান্ডার্স বলেন, আহত শিশুটির অবস্থা আশঙ্কাজনক। হামলার সম্ভাব্য সব উদ্দেশ্য মাথায় নিয়েই আমরা কাজ করছি। বন্দুকধারীর সঙ্গে পুলিশের গুলিবিনিময়ের ঘটনা ঘটেছে।

সশস্ত্র পুলিশ ড্যানফোর্থ নামে পরিচিত গ্রিক টাউনের মূল সড়ক ঘিরে রেখেছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা বলেন, তারা ২৫টি গুলির শব্দ শুনতে পেয়েছেন।

জোডি স্টেইনহাওয়ার নামের এক প্রত্যক্ষদর্শী বলেছেন, গোলাগুলির ঘটনার সময় তিনি পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে ড্যানফোর্থের একটি রেস্তোরাঁয় ছিলেন। তখন হঠাৎ করেই তারা গোলাগুলির শব্দ শুনতে পান।

তারা মনে করেছিলেন- বাজি ফোটানো হচ্ছে। পরে দৌড়ে বের হয়ে রেস্তোরাঁর পেছনে গেলে তারা লোকজনের চিৎকার শুনতে পান।

আহতদের প্রতি সহানুভূতি জানিয়ে অন্টারিওর মুখ্যমন্ত্রী ডাগ ফোর্ড বলেন, যারা ভুক্তভোগীদের সহায়তায় এগিয়ে এসেছেন, তাদের সবার প্রতি আমি কৃতজ্ঞ।

চলতি বছরে টরোন্টোতে বন্দুক হামলার ঘটনা বেড়েছে। ২০১৭ সালের তুলনায় চলতি বছরে বন্দুক সহিংসতায় মৃতের ঘটনা ২৬ শতাংশ থেকে বেড়ে ৫৩ শতাংশে দাঁড়িয়েছে। গত সপ্তাহে পুলিশের দেয়া উপাত্ত থেকে জানা গেছে, কেবল এলোপাতাড়ি গুলির ঘটনাই ১৩ শতাংশ বেড়েছে।

সম্প্রতি গোলাগুলির ঘটনা বেড়ে যাওয়ায় টরোন্টোতে ২০০ পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। শহরের পুলিশ এসব ঘটনায় দলবদ্ধ সহিংসতাকে দায়ী করেছে।

টরোন্টোর মেয়র জন টোরি বলেন, ওই এলাকায় বন্দুক সহিংসতার সমস্যা রয়েছে। সেখানে বহু মানুষের হাতে বন্দুক রয়েছে।

টোরি বলেন, আমরা এখনও বিস্তারিত তথ্য পাইনি। তবে সেখানে কি ঘটেছিল তা জানার চেষ্টা করছি।

 

1 dead, 13 injured after shooting on Toronto’s Danforth; shooter also dead