Sheersha Media

ব্রেকিং নিউজ

সন্ধ্যা ৬:৪৫ ঢাকা, রবিবার  ১৮ই নভেম্বর ২০১৮ ইং

‘জয় বাংলা’ বললেনই না, ডিএনসিসি প্রশাসক

মহান বিজয় দিবস উপলক্ষ্যে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন (ডিএসসিসি) ও উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) যৌথ আয়োজনে মহানগরীতে বসবাসরত মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা দেয়া হয়। মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১১টার থেকে রাজধানীর ওসমানী উদ্যানে এ সংবর্ধনা অনুষ্ঠান হয়। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দিতে এসে মুক্তিযোদ্ধাদের তোপের মুখে পড়েন ডিএনসিসির প্রশাসক ড. রাখাল চন্দ্র বর্মণ।

বক্তব্যে তিনি বলেন, ‘মুক্তিযোদ্ধাদের কথা বিবেচনা করে উত্তর সিটি করপোরেশন তাদের হোল্ডিং ট্যাক্স মওকুফ করেছে।’ কিন্তু তার এমন বক্তব্যের বিরোধীতা করেন উপস্থিত মুক্তিযোদ্ধারা। তারা ‘না’ ‘না’ বলে প্রতিবাদ জানাতে থাকনে। মুক্তিযোদ্ধারা জানান, তাদের হোল্ডিং ট্যাক্স মওকুফ করা হয়নি।

মুক্তিযোদ্ধাদের এমন প্রতিবাদ দেখে প্রশাসক কিছুক্ষণ তার বক্তব্য বন্ধ রাখেন। পরে মুক্তিযোদ্ধাদের প্রতিবাদের কোনো জবাব না দিয়ে তিনি বক্তব্য চালিয়ে যান।

প্রশাসক তার বক্তব্যে জানান, নিহত মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য ডিএনসিসির অর্থায়নে মিরপুরের বিশাল একটি স্থানে কবরস্থান নির্মাণ করা হয়েছে।

পরে ‘বাংলাদেশ চিরজীবী হোক’ বলেই বক্তৃতা শেষ করেন প্রশাসক ড. রাখাল চন্দ্র বর্মণ। এ সময় মুক্তিযোদ্ধারা তাকে ‘জয় বাংলা’ বলতে বলেন। অনুষ্ঠানে অনেক কর্মকর্তারা ‘জয় বাংলা’ না বলায় ক্ষোভ প্রকাশ করেন মুক্তিযোদ্ধারা।

এরপর প্রধান অতিথির বক্তৃতায় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণমন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, ‘আমাদের অনেকেই “জয় বাংলা” বলতে কৃপণতা করেন।’ আপনাদের হাতে তালি ও জয় বাংলা শুনা যাচ্ছে না। আজান দিলে যেমন শয়তান দূর হয়, জয় বাংলা বললে পাকিস্তানী হানাদাররা দূর হয়।