Sheersha Media

ব্রেকিং নিউজ

সন্ধ্যা ৭:৫৮ ঢাকা, মঙ্গলবার  ২০শে নভেম্বর ২০১৮ ইং

জয়পুরহাটে হত্যা মামলায় ৭ জনের মৃত্যুদণ্ড

জয়পুরহাটের সদর উপজেলার ধারকী বড়াইল গ্রামের চাঞ্চল্যকর আবদুল মতিন হত্যা মামলায় সাত আসামির মৃত্যুদণ্ড ও একজনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন জেলা ও দায়রা জজ আদালত।

বুধবার বিকাল ৩টায় জয়পুরহাটের জেলা ও দায়রা জজ আবদুর রহিম এই রায় ঘোষণা করেন।

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন- একই এলাকার ওয়াজেদ আলী তোরাফ, চৈতুন মোল্লা, ছাফাদুল, মছির উদ্দীন, আনু, আবু হাসান দিলিপ ও মন্টু। যাবজ্জীবন কারাদণ্ডপ্রাপ্ত আসামি মাহবুব আলম বাবু। এদের মধ্যে মন্টু পলাতক রয়েছে।

মামলার বিবরণীতে জানা যায়, ২০০৬ সালের ২৭ অক্টোবর সকাল ৭টার দিকে জয়পুরহাট সদর উপজেলার ধারকী মন্ডলপাড়া গ্রামের মৃত মফিজ উদ্দিনের ছেলে আবদুল মতিনকে পূর্ব শত্রুতার জেরে বড়াইল গ্রামের রাস্তায় মোটরসাইকেলের গতিরোধ করে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে ও লাঠি-সোটা দিয়ে বেধড়ক পিটিয়ে হত্যা করা হয়।

ওই ঘটনায় রাতেই নিহতের ভাই বাদী হয়ে সদর থানায় নয়জনকে জনকে আসামি করে মামলা দায়ের করেন। পরে ২০০৭ সালের ৩০ মার্চ তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই গোলাম রব্বানী আদালতে এ মামলার অভিযোগপত্র দাখিল করেন। আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করার আগেই এক আসামির মৃত্যু হয়।

মামলায় ১৬ জন সাক্ষী ও ১০ জন নিরীক্ষকের সাক্ষীতে আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় আদালত এ রায় ঘোষণা করেন।