Sheersha Media

ব্রেকিং নিউজ

রাত ৮:০৯ ঢাকা, বুধবার  ১৪ই নভেম্বর ২০১৮ ইং

জ্বালিয়ে পুড়িয়ে হত্যার বিচার করা হবে

নৌ-পরিবহন মন্ত্রী শাজাহান খান বলেছেন, গণতন্ত্রের নামে যারা মানুষকে জ্বালিয়ে পুড়িয়ে হত্যা করে তাদের বিচার করা হবে।
তিনি বলেন, যারা আন্দোলনের নামে গাড়ি ভাংচুর ও পোড়ানোর নির্দেশ দেয় তাদেরকেও বিচারের আওতায় আনা হবে।
মন্ত্রী আজ ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ণ ইউনিটে নিহত গাড়ীর হেলপার মুরাদ হোসেন মোল্লাকে দেখতে গিয়ে এসব কথা বলেন।
শাজাহান খান বলেন, আন্দোলনের নামে সন্ত্রাসীরা ১৯৭১ সালের মতো ঘুমন্ত মানুষের উপর আক্রমন করে নিরীহ মানুষকে হত্যা করছে। এদের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে হবে।
তিনি বলেন, ওইসব হত্যাকারীদের প্রতিহত করতে আইন-শৃংখলা বাহিনীর সাথে জনগণকেও ঐক্যবদ্ধ করতে হবে।
মুরাদ হোসেন মোল্লা (২০) যশোরে গত ৭ জানুয়ারি ২০ দলীয় জোটের অবরোধকারীদের দেয়া আগুনে জ্বলসে যায়। ওই দিন ভোর ৪ টায় তিনি বাসে ঘুমিয়ে ছিলেন। মূমুর্ষ অবস্থায় তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। আজ সকালে সে মারা যায়।
মন্ত্রী নিহত মুরাদ হোসেন মোল্লার পরিবারকে ১০ হাজার টাকার অনুদান প্রদান করেন।
তিনি মরহুম মুরাদ হোসেন মোল্লার রুহের মাগফেরাত কামনা করেন এবং শোক সন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি সমবেদনা জানান।
মন্ত্রী ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ণ ইউনিটে চিকিৎসাধীন সিএনজি চালক সিদ্দিকুর রহমান এবং প্রাইভেট কার চালক আবুল কালামকেও দেখতে যান। তিনি তাদের চিকিৎসার খোঁজ খবর নেন এবং এদের দ্রুত আরোগ্য কামনা করেন।
সিদ্দিকুর রহমান ৫ জানুয়ারি ময়মনসিংহে এবং আবুল কালাম ৯ জানুয়ারি ঢাকায় অবরোধকারীদের দেয়া আগুনে দগ্ধ হন।
পরে মন্ত্রী ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন পুলিশ সদস্যদেরকে দেখতে যান। তিনি তাদের চিকিৎসার খোঁজ খবর নেন এবং দ্রুত আরোগ্য কামনা করেন।
আজ ভোরে ঢাকার ফকিরাপুলে পুলিশ সদস্যদের বাস ও ট্রাকের সংঘর্ষে দুজন পুলিশ নিহত হন এবং ৩১জন পুলিশ সদস্য আহত হন