Press "Enter" to skip to content

‘জেলা পরিষদ নির্বাচন জনগণের ছিল না’

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ বলেছেন, জেলা পরিষদ নির্বাচন জনগণের নির্বাচন ছিল না।  তাই জাতীয় পার্টি এ নির্বাচনে অংশ নেয়নি।

এরশাদ বলেন, ‘এটা মৌলিক গণতন্ত্রের মত নির্বাচন ছিল। সবাই ছিল সরকারি দলের, সেজন্য এই নির্বাচনে যাওয়া সমীচিন ছিল না।’

বৃহস্পতিবার রাজধানীর গুলশানের একটি কনভেনশন সেন্টারে মিট দ্য প্রেস অনুষ্ঠানে জেলা পরিষদ নির্বাচনে অংশ নেয়ার কারণ হিসেবে তিনি এসব কথা বলেন।

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে অংশ না নেয়ার ব্যাখ্যায় সাবেক রাষ্ট্রপতি বলেন,  নারায়ণগঞ্জে দলের সাংগঠনিক অবস্থা শক্তিশালী না থাকায় সেখানে নির্বাচনে জাতীয় পার্টি প্রার্থী দেয়নি।

এরশাদ বলেন, আইভী সম্পর্কে আমাদের ধারণা ছিল। সেখানে জেতার মত সাংগঠনিক অবস্থা আমাদের ছিল না।

বিএনপির চেয়ে নিজের দলকে শক্তিশালী বলে দাবি করে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান বলেন, আমরা জোর দিচ্ছি জাতীয় নির্বাচনের দিকে। জাতীয় পার্টি নির্বাচনমুখী দল এবং জাতীয় নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবে এবং সর্বশক্তি নিয়েই করবে। আমরা সেভাবে প্রস্তুতিও নিচ্ছি।

২০১৯ সালের জাতীয় নির্বাচন নির্ধারিত সময়ে সুষ্ঠুভাবে হবে উল্লেখ করে তিনি বলেন, বিএনপি ওই নির্বাচনে না গেলে তাদের নিবন্ধন বাতিল হয়ে যাবে।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে এরশাদ বলেন, আমরা যতবার এককভাবে নির্বাচন করেছি, লাভবান হয়েছি। তবে এ বিষয়ে এখনও সিদ্ধান্ত নেয়ার সময় আসেনি। পরিস্থিতি বুঝে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।

অনুষ্ঠানে জাতীয় পার্টির কো-চেয়ারম্যান জিএম কাদের, মহাসচিব এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদার, প্রেসিডিয়াম সদস্য এস এম ফয়সল চিশতী, সোলায়মান আলম শেঠ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

Mission News Theme by Compete Themes.