ব্রেকিং নিউজ

সকাল ৬:৪৯ ঢাকা, রবিবার  ২২শে জুলাই ২০১৮ ইং

বায়তুল মোকাররমে বিক্ষোভ

জেরুজালেম ইস্যু: মার্কিন দূতাবাস ঘেরাও করবে হেফাজত

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প জেরুজালেমকে ইসরাইলের রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতি দেয়ার প্রতিবাদে ঢাকায় মার্কিন দূতাবাস ঘেরাও করবে হেফাজতে ইসলাম।

বুধবার বেলা ১১টায় এ ঘেরাও কর্মসূচি পালন করা হবে। শুক্রবার জুমার নামাজের পর রাজধানীর বায়তুল মোকাররম মসজিদের উত্তরগেটে আয়োজিত এক বিক্ষোভ সমাবেশে এ ঘোষণা দেন হেফাজতের ঢাকা মহানগর আমির মাওলানা নূর হোসেন কাসেমি।

তিনি বলেন, মুসলমানদের পবিত্র শহর আল কুদসকে (জেরুজালেম) ইহুদিবাদী ইসরাইলের রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতি দেয়ার এ সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করতে হবে। এ সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার হওয়ার আগ পর্যন্ত আন্দোলন চলবে।

অন্যদিকে একই দাবিতে বায়তুল মোকাররম উত্তর গেট এলাকায় পৃথক বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ, ইসলামী ঐক্য আন্দোলন এবং ছাত্র মজলিশসহ বিভিন্ন ধর্মীয় দল। এ সময় পুরানা পল্টন থেকে দেনিক বাংলা মোড়ে প্রায় ৪০ মিনিট যান চলাচল বন্ধ ছিল। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর বিপুলসংখ্যক সদস্য এই দুই মোড়ে মোতায়েন ছিল।

বিক্ষোভকারীরা ফিলিস্তিনের ‘কিছু হলে জ্বলবে আগুন ঘরে ঘরে’, ‘দুনিয়ার মুসলিম এক হও, লড়াই করো’, ‘বিশ্ব মুসলিম ঐক্য গড়, ফিলিস্তিনি স্বাধীন করো’ প্রভৃতি স্লোগান দেন।

বিক্ষোভ সমাবেশে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের মহানগর উত্তর শাখার সভাপতি শেখ ফজলে বারী মাসউদ বলেন, ট্রাম্প চান না বিশ্বের বুকে শান্তি থাকুক। তার কাজই হলো গোটা দুনিয়াব্যাপী অশান্তির তাঁবেদারি চালু রাখা। মুসলিম উম্মাহ তাকে উচিত শিক্ষা দেবে।

ইসলামী আন্দোলনের প্রেসিডিয়াম সদস্য অধ্যক্ষ মাওলানা সৈয়দ মোসাদ্দেক বিল্লাল মাদানি বলেন, ‘মুসলমানদের এক বিন্দু রক্ত থাকতে জেরুজালেম ইহুদিদের রাজধানী করতে দেব না।’

বিক্ষোভ সমাবেশে আরও বক্তব্য দেন হেফাজত নেতা মাওলানা মাহফুজুল হক, ড. আহমদ আবদুল কাদের, মাওলানা আবদুর রউফ ইউসুফী, মাওলানা মজিবুর রহমান, মাওলানা আহমদ আলী কাসেমী প্রমুখ।

বক্তরা বলেন, মুসলমানদের পবিত্র নগরী জেরুজালেম হবে স্বাধীন ফিলিস্তিনের রাজধানী। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প যে ঘোষণা দিয়েছেন তা সম্পূর্ণ অবৈধ। ট্রাম্পের এ ঘোষণার বিরুদ্ধে বিশ্ববাসীকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। আল-কুদস তথা জেরুজালেম মুক্ত করার জন্যে বিশ্ব মুসলিমকে প্রতিবাদ ও প্রতিরোধে ঝাঁপিয়ে পড়তে হবে।