শীর্ষ মিডিয়া

ব্রেকিং নিউজ

রাত ৯:১৩ ঢাকা, মঙ্গলবার  ১৮ই ডিসেম্বর ২০১৮ ইং

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর

জামিনে মুক্তি পেয়ে চিকিৎসাধীন মাকে দেখতে গেছেন মির্জা ফখরুল

অবশেষে ৭ মাস পর জামিনে মুক্তি পেলেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রিজন সেলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মঙ্গলবার সন্ধ্যা সাতটায় তাকে মুক্তি দেয়া হয়। এর আগে জামিনের আদেশ মঙ্গলবার বিকালে কেন্দ্রীয় কারাগারে পৌছায়।

ইফতারের সময় তিনি মুক্তি পেয়ে বঙ্গবন্ধু মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে সাংবাদিকদের সামনে কথা বলেন মির্জা ফখরুল।
মুক্তি পেয়ে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব দেশবাসীর কাছে নিজের জন্য দোয়া ছেয়েছেন। উন্নত চিকিৎসার জন্য শিগগিরই তিনি সিঙ্গাপুর যাবেন। মুক্তি পেয়ে রাজধানীর ইউনাইটিড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন মাকে দেখতে গেছেন ফখরুল।
দশম সংসদ নির্বাচনের বর্ষপূর্তি ঘিরে বিএনপির আন্দোলনের মধ্যে ৬ জানুয়ারি জাতীয় প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনের পর গ্রেফতার হন মির্জা ফখরুল। এরপর নাশকতার সাতটি মামলায় তাকে গ্রেফতার দেখানো হয়। এর মধ্যে পল্টন থানায় গাড়ি পোড়ানো, অগ্নিসংযোগ ও ককটেল বিস্ফোরণের এক মামলায় ১৬ এপ্রিল হাইকোর্ট থেকে ছয় মাসের জামিন পান মির্জা ফখরুল।
এরপর পল্টন থানার দুটি এবং মতিঝিল থানার এক মামলায় ১৮ জুন পুলিশ প্রতিবেদন দাখিল পর্যন্ত তাকে জামিন দেন হাইকোর্ট। রাষ্ট্রপক্ষ আপিল বিভাগে গেলে সেখানেও ফখরুলের জামিন বহাল থাকে। আর পল্টন থানার এই তিন মামলায় ২১ জুন হাইকোর্ট রুল নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত ফখরুলের জামিন মঞ্জুর করে।
১৩ জুন চিকিৎসার জন্য তাকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি করা হয়। মির্জা ফখরুলের পারিবারিক সূত্র জানিয়েছে, শিগগির চিকিৎসার জন্য মির্জা ফখরুলকে বিদেশে নেয়া হবে।