ব্রেকিং নিউজ

রাত ৪:১৯ ঢাকা, বৃহস্পতিবার  ২০শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

এরশাদ
জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ, ফাইল ফটো

জাতীয় নির্বাচনী প্রচারণায় নামছে ‘জাপা

আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জয়লাভ করে সরকার গঠনের লক্ষ্য নিয়ে নির্বাচনী প্রচারণায় নামবে জাতীয় পার্টি। দলটির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ আগামী ১ অক্টোবর পূণ্যভূমি সিলেট থেকে এই প্রচারণার কাজ শুরু করবেন।

রোববার রংপুরের নিজ বাসভবন পল্লীনিবাসে সাংবাদিকদের সামনে তিনি এই ঘোষণা দেন।

পবিত্র ঈদুল-আজহা নিজ এলাকায় উদযাপন করতে ৩ দিনের সফরে রংপুরে এসেছেন তিনি।

এরশাদ নিজ বাসভবনে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাব দেন।

এরশাদ বলেন, প্রতিটি রাজনৈতিক দলের লক্ষ্য থাকে সুষ্ঠু নির্বাচনের মধ্য দিয়ে রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় যাওয়া এবং সরকার গঠন করা। জাতীয় পার্টি সে লক্ষ্য নিয়ে কাজ করছে। জাতীয় পার্টি অতীতে ক্ষমতায় ছিল। জাতীয় পার্টি জনগণের কাছে পরীক্ষিত বন্ধু। আমরা আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিপুল পরিমাণ আসনে নির্বাচিত হয়ে সরকার গঠন করব এই আশা রাখি।

দেশের বর্তমান জঙ্গি তৎপরতা ও জঙ্গি দমন নিয়ে তাকে সাংবাদিকরা প্রশ্ন করলে তিনি বলেন, জঙ্গি তৎপরতা ও দমনে সরকার কী করছে তা তো সাংবাদিকরাই ভাল জানেন।

এ নিয়ে তিনি কোনো প্রশ্ন না বাড়িয়ে বলেন, সন্ত্রাস প্রতিরোধে সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে। সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের স্বাধীনতা পদক প্রত্যাহার ও কবর সরিয়ে নেয়ার যে সরকারি উদ্যোগ তা তিনি কীভাবে দেখছেন? এমন প্রশ্নের তিনি কোনো সরাসরি উত্তর না দিয়ে বলেন, এটি সরকারের সিদ্ধান্ত এ নিয়ে কোনো মন্তব্য করা ঠিক হবে না।

গত শনিবার টঙ্গীতে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা নিয়ে প্রশ্ন করলে এরশাদ বলেন, এটি দুঃখজনক ঘটনা। এতগুলো লোকের প্রাণহানি কষ্টকর। এরাই হয়তো একটি পরিবারের উপার্জনক্ষম ব্যক্তি। তাদের অকাল মৃত্যুতে এ সব পরিবারের অপূরণীয় ক্ষতি হলো।

তিনি নিহত ও আহতদের প্রতি সমবেদনা জানিয়ে বলেন, কেন এমন দুর্ঘটনা ঘটলো তা ক্ষতিয়ে দেখা প্রয়োজন এবং আর যেন এমন ঘটনা না ঘটে সে জন্য আগাম প্রস্তুতি নেয়া দরকার।

তিনি রংপুরে পৌঁছলে জাতীয় পার্টির নেতাকর্মীরা তাকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান। এরশাদের সঙ্গে এ সময় উপস্থিত ছিলেন – জাতীয় পার্টির কো-চেয়াম্যান, সাবেক মন্ত্রী জিএম, কাদের, পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটির প্রেসিডিয়াম সদস্য মন্ত্রী মসিউর রহমান রাঙ্গা, সাংগঠনিক সম্পাদক সিটি কর্পোরেশনের সাবেক মেয়র আব্দুর রউফ মানিক, জেলা জাতীয় পার্টির আহ্বায়ক সাবেক সংসদ সদস্য মোফাজ্জল হোসেন মাস্টার, মহানগর কমিটির আহ্বায়ক সদর উপজেলার সাবেক চেয়ারম্যান মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা, সদস্য সচীব এসএম ইয়াসিরসহ অন্যান্য নেতাকর্মীরা।

এর আগে তিনি সার্কিট হাউসে গার্ড অব অনার গ্রহণ করেন।