ব্রেকিং নিউজ

সকাল ৬:২৩ ঢাকা, বৃহস্পতিবার  ২০শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

জনগণের নিরাপত্তায় সবকিছু করবে সরকার: প্রধানমন্ত্রী

জঙ্গীবাদ, সন্ত্রাস ও বোমাবাজদের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে দেশবাসীর প্রতি আহবান জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেছেন, জনগণের জীবন ও সম্পদ রক্ষায় সরকার সবকিছু করবে।
তিনি বলেন, ‘সন্ত্রাসবাদ, জঙ্গীবাদ ও বোমাবাজদের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে আমি সর্বস্তরের জনগণের প্রতি আহবান জানাচ্ছি। আমরা কাউকে জনগণের শান্তি বিনষ্ট করতে দেবো না। জনগণের জীবন ও সম্পদ রক্ষায় আমরা সবকিছু করবো।’
আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা সন্ত্রাস, অরাজকতা এবং বোমা হামলার সঙ্গে জড়িত দুর্বৃত্তদের পুলিশের কাছে হস্তান্তরের জন্য জনগণের প্রতি আহবান জানান।
তিনি আরো বলেন, ‘বোমা তৈরি ও নিক্ষেপকারী সন্ত্রাসীদের গ্রেফতারে পুলিশকে সহায়তা করুন। তাদের আইনের আওতায় আনা হবে এবং দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেয়া হবে।’
আজ বিকেলে ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে এক বিশাল জনসভায় ভাষণে প্রধানমন্ত্রী এ হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেন। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৪তম স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ এ সমাবেশের আয়োজন করে।
আওয়ামী লীগের সিনিয়র প্রেসিডিয়াম সদস্য ও সংসদ উপনেতা সৈয়দা সাজেদা চৌধুরীর সভাপতিত্বে এ সমাবেশে অন্যান্যের মধ্যে দলের উপদেষ্টা পরিষদ সদস্য আমির হোসেন আমু, তোফায়েল আহমেদ ও সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত, প্রেসিডিয়াম সদস্য বেগম মতিয়া চৌধুরী, শেখ ফজলুল করিম সেলিম ও মোহাম্মদ নাসিম, দলের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ ও জাহাঙ্গীর কবির নানক এবং সাংগঠনিক সম্পাদক কৃষিবিদ আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম বক্তব্য রাখেন।
এ ছাড়া ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি এম এ আজিজ, সাধারণ সম্পাদক মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া, খাদ্যমন্ত্রী এডভোকেট কামরুল ইসলাম এবং দলের সহযোগী সংগঠনগুলোর সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকরাও বক্তৃতা করেন। সমাবেশে পরিচালনা করেন আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ এবং উপ-প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক অসিম কুমার উকিল।
সমাবেশে রংবেরঙের ব্যানার, ফেস্টুন এবং বঙ্গবন্ধু ও শেখ হাসিনার প্রতিকৃতি নিয়ে বাদ্যের তালে তালে দলের ঢাকা মহানগর ও পার্শ্ববর্তী এলকাসমূহের হাজার হাজার নেতা-কর্মী ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে সমবেত হয়।