ব্রেকিং নিউজ

সকাল ৮:৪৯ ঢাকা, শনিবার  ১৭ই নভেম্বর ২০১৮ ইং

জঙ্গীবাদের বিরুদ্ধে মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তিকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে : জাসদ

জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জাসদ) সম্মেলনে বক্তারা জঙ্গীবাদের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের সকল শক্তিকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহবান জানিয়েছেন।
আজ শুক্রবার বিকেল ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জাসদ) সম্মেলনের উদ্বোধনী অধিবেশনে বক্তারা এ আহবান জানান।
জাসদ সভাপতি হাসানুল হক ইনুর সভাপতিত্বে সভায় আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য এবং স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম, বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন, জাসদের সাধারণ সম্পাদক শরিফ নুরুল আম্বিয়া, কার্যকরি সভাপতি মইনউদ্দিন খান বাদল এমপি, সাম্যবাদী দলের সাধারণ সম্পাদক দিলীপ বড়–য়া, চীনের রাষ্ট্রদূত মা কু মিং, জাসদের স্থায়ী কমিটির সদস্য মীর হোসেন আক্তার, স্থায়ী কমিটির সদস্য শিরিন আখতার এমপি, নাজমুল হক প্রধান এমপি প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।
আগামীকাল শনিবার সকাল নয়টায় রাজধানীর মহানগর নাট্যমঞ্চে সম্মেলনের দ্বিতীয় অধিবেশন অনুষ্ঠিত হবে।
অনুষ্ঠানে বক্তৃতাকালে মোহাম্মদ নাসিম বলেন, সরকারকে অস্থিতিশীল করতে চক্রান্ত করা হচ্ছে। কথা নাই, বার্তা নাই কার্গো বিমান বন্ধ করে দেয়ার চক্রান্ত করছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে চাপে রাখার চেষ্টা হচ্ছে। বঙ্গবন্ধু কখনো আত্মসমর্পণ করেননিÑ শেখ হাসিনাও করবেন না।
কেন্দ্রীয় ১৪-দলের মুখপাত্র বলেন, ১৪-দল একটি অসাম্প্রদায়িক জোট। এই জোটের নেতৃত্ব দিচ্ছেন শেখ হাসিনা। সকল চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করে শেখ হাসিনা আজ দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন।
দলীয় প্রতীকে স্থানীয় সরকার নির্বাচনের প্রসঙ্গে অধিবেশনে রাশেদ খান মেনন বলেন, বর্তমানে স্থানীয় সরকার নির্বাচন হচ্ছে দলীয় প্রতীকে। এই নির্বাচনের মধ্যদিয়ে তৃণমূলে গণতন্ত্র শক্তিশালী হচ্ছে। তৃণমূলে পারস্পরিক সম্প্রীতি বিনষ্ট হলে গণতন্ত্রের অগ্রযাত্রা বাধাগ্রস্ত হবে।
তিনি বলেন, জামায়াত-মৌলবাদি শক্তি আজ দেশের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করছে। বিএনপি-জামায়াত জোট এ দেশকে পাকিস্তান বানানোর ষড়যন্ত্র করছে। তাই আমাদের সবাইকে ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে।
বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার সমালোচনা করে তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেন, খালেদা জিয়া পিছু হটায় ও যুদ্ধাপরাধীদের বিচার চলায় আপাতত মনে হতে পারে যে, পরিস্থিতি শান্ত। কিন্তু বিএনপি ও খালেদা এখনো ক্ষমা চায়নি, আতœসমর্পণ করেনি এবং তওবা করেনি। তাই বিপদ রয়েই গেছে। উপরে উপরে পরিস্থিতি শান্ত হলেও সংঘাত ও সংকট রয়েই গেছে।
তিনি বলেন, আগুন সন্ত্রাসী ও জঙ্গিনেত্রী খালেদা জিয়া এখনো চূড়ান্তভাবে পরাজিত হননি। তিনি দম ফেলার চেষ্টা করছেন, শক্তি সঞ্চয় করছেন। একদিকে গণতন্ত্রের জন্য মায়া করছেন, অন্যদিকে কৌশল পাল্টিয়ে চূড়ান্ত আক্রমণ হানার চেষ্টা করছেন। আরো বড় আক্রমণের প্রস্তুতি নিচ্ছেন।
তথ্যমন্ত্রী বলেন, জঙ্গিবাদের পাহারাদার খালেদা জিয়াকে রাজনীতি থেকে বিদায় করতে শেষ যুদ্ধটি আমাদের করতে হবে। যারা জেনে-বুঝে মিটমাটের কথা বলছেন, তারা আগুন সন্ত্রাসীদের বাংলাদেশের রাজনীতিতে জায়গা দেয়ার চক্রান্ত করছেন।
ইনু বলেন, বাংলাদেশকে আফগানিস্তান ও পাকিস্তান বানানোর ষড়যন্ত্র এখনো চলছে। তাই এদের বিরুদ্ধে যুদ্ধে জয়ী হতেই হবে।
আর আগে বিকেল ৪টায় জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলনের মধ্যদিয়ে জাসদের সম্মেলন আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করা হয়। এ সময়ে জাতীয় সংগীত পরিবেশন করেন শিল্পীরা।