ব্রেকিং নিউজ

রাত ৩:৫১ ঢাকা, শুক্রবার  ২১শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

‘জঙ্গি-দানবের দাপাদাপির ভিতরে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও সংস্কৃতি রক্ষার ঢাল চলচ্চিত্র’

তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেছেন, চলচ্চিত্র জঙ্গি-দানবের দাপাদাপির ভেতরে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও দেশীয় সংস্কৃতি রক্ষার ঢাল হিসেবে কাজ করবে।
তিনি বুধবার ঢাকার উত্তরায় বাংলাদেশ ফিল্ম ও টেলিভিশন অ্যাকাডেমি (বিএফটিএ)’র উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি একথা বলেন। সরকারিভাবে গত বছর চালু হওয়া বাংলাদেশ সিনেমা ও টেলিভিশন ইন্সটিটিউট (বিসিটিআই) এর কথা উল্লেখ করে মন্ত্রী চলচ্চিত্র ও টেলিভিশন বিষয়ে বেসরকারি উদ্যোগের সাফল্য কামনা করেন।
বিএফটিএ’র অন্যতম উপদেশক প্রখ্যাত অভিনেতা ও নাট্যনির্দেশক আলী যাকের অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন। বিশেষ অতিথি ছিলেন খ্যাতিমান অভিনয়শিল্পী সুবর্ণা মুস্তাফা ও অভিনেতা আফজাল হোসেন।
বিএফটিএ’র উপদেশকবৃন্দ অধ্যাপক ও লেখক সৈয়দ মনজুরুল ইসলাম, চলচ্চিত্রব্যক্তিত্ব এম এ আলমগীর, বিশিষ্ট ডিজাইনার চন্দ্রশেখর সাহা ও নন্দিত বিজ্ঞাপননির্মাতা পিপলু আর খানসহ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ওয়াহিদা মল্লিক জলি, সাবেরী আলম, বন্যা মির্জা, আফরোজা বানু, কলকাতার প্রখ্যাত মঞ্চ অভিনেতা পার্থ সারথী দেব প্রমুখ এ সময় উপস্থিত ছিলেন।
তথ্যমন্ত্রী এ সময় স্বাধীন দেশ হিসেবে বাংলাদেশের অভ্যূদয়ের বিভিন্ন পর্যায়ে স্মরণ করে বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুই সেই মহান নেতা যিনি সাম্প্রদায়িকতার আলখাল্লা ঝেড়ে ফেলে এদেশের সকলকে বাঙালিত্বের পরিচয় খুঁজে দিয়েছেন। আর সেই পরিচয় আমাদের সংস্কৃতির মধ্যেই প্রকাশিত।’
হাসানুল হক ইনু চলচ্চিত্র ও টেলিভিশন অনুষ্ঠানকে ডিজিটাল প্রযুক্তির সাথে সমন্বয় আবশ্যক উল্লেখ করে বলেন, অশি¬তা রোধ এখন চলচ্চিত্রের সামনে একটি বড় চ্যালেঞ্জ। একইসাথে মন্ত্রী রাজনীতির সাথে সংস্কৃতির সংশে¬ষের উপর গুরুত্বারোপ করেন।
তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু এসময় www.bfta.com.bd ওয়েবসাইট উন্মোচনের মাধ্যমে বাংলাদেশ ফিল্ম ও টেলিভিশন অ্যাকাডেমির উদ্বোধন ঘোষণা করেন।