ব্রেকিং নিউজ

রাত ৮:৩১ ঢাকা, সোমবার  ১৬ই জুলাই ২০১৮ ইং

মতিয়া চৌধুরী
কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী, ফাইল ফটো

জঙ্গি অর্থায়নের বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থানে সরকার : মতিয়া

সংসদ কার্যে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের দায়িত্বপ্রাপ্ত কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী বলেছেন, জঙ্গি অর্থায়নের বিরুদ্ধে সরকারের অবস্থান অত্যন্ত কঠোর।

তিনি আজ সংসদে এম আবদুল লতিফের এক প্রশ্নের জবাবে আরো বলেন, ‘যে কোন ধরনের জঙ্গি অর্থায়নের বিরুদ্ধে সরকার কঠোর অবস্থানে। এনজিও বিষয়ক ব্যুরোতে এনজিওদের দাখিলকৃত ফর্ম এফএম (ফরেন ডোনেশন-৬) প্রকল্প প্রস্তাবের ৫(গ) অনুচ্ছেদের শর্তানুযায়ী প্রকল্পের অর্থের উৎস ইউনাইটেড ন্যাশনস সিকিউরিটি কাউন্সিল রেজুলেশন (ইউএনএসসিআর) দ্বারা প্রকাশিত মানি লন্ডারিং এবং সন্ত্রাসী কার্যক্রমে অর্থায়নকারী কালো তালিকাভুক্ত প্রতিষ্ঠান বা ব্যক্তির সঙ্গে যাচাই করে দেখা হয়।’

মতিয়া চৌধুরী বলেন, বাংলাদেশ ব্যাংকের ফিনান্সিয়াল ইন্টেলিজেন্স ইউনিটের সঙ্গে এনজিও বিষয়ক ব্যুরোর একজন পরিচালক ফোকাল পয়েন্ট হিসেবে নিয়মিত তথ্য-উপাত্ত আদান-প্রদানের মাধ্যমে জঙ্গি অর্থায়ন কার্যক্রম তদারকি করেন। পাশাপাশি বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার কাছে নিবিড় সমন্বয় করে এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় নজরদারি নিশ্চিত করা হয়। অনেক সময় সংশ্লিষ্ট দাতা সংস্থার ওয়েবসাইট পরিদর্শন করে দাতা সংস্থা সম্পর্কে তথ্য সংগ্রহ করা হয়।

তিনি বলেন, এনজিও বিষয়ক ব্যুরোর কর্মকর্তারা এনজিওদের কার্যক্রম নিয়মিত সরেজমিনে পরিদর্শন ও মূল্যায়ন করে থাকেন। পরিদর্শনকালে জঙ্গি অর্থায়ন রবং মানিলন্ডারিং প্রতিরোধে সরকারের সংশ্লিষ্ট সংস্থা বা দফতরের এ সংক্রান্ত নির্দেশনা যথাযথভাবে প্রতি পালন করা হয়। এছাড়া পাহাড়ী অঞ্চলে বিদেশি অনুদান পুষ্ট প্রকল্প অনুমোদনের ক্ষেত্রে পার্বত্য আঞ্চলিক পরিষদের মতামত এবং পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের অনাপত্তি গ্রহণ করা হয়।

মন্ত্রী বলেন, চরাঞ্চলসহ দেশের অন্যস্থানে প্রকল্প অনুমোদনের পর-পরই স্থানীয় প্রশাসন বিশেষ করে জেলা প্রশাসক এবং উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে অবহিত করে প্রকল্প কার্যক্রম পরিচালনা করার জন্য নির্দেশনা দেয়া হয়।

তিনি বলেন, এই প্রক্রিয়ায় স্থানীয় প্রশাসনের নজরদারিতে এনজিওসমূহ চরাঞ্চলে তাদের কর্মকান্ড পরিচালনা করে থাকে। জেলা এবং উপজেলা পর্যায়ে যথাক্রমে জেলা প্রশাসক এবং উপজেলা নির্বাহী অফিসারের সভাপতিত্বে এনজিও বিষয়ক মাসিক সমন্বয় সভায় প্রতিটি প্রকল্পের কার্যক্রম, বাস্তবায়ন অগ্রগতি, জঙ্গি অর্থায়ন এবং মানিলন্ডারিং প্রতিরোধের বিষয়ে বিশদ আলোচনা হয়।