Sheersha Media

ব্রেকিং নিউজ

সন্ধ্যা ৭:২৭ ঢাকা, শনিবার  ১৭ই নভেম্বর ২০১৮ ইং

‘জঙ্গিদের ধ্বংসে তাদের পক্ষে কেউ ওকালতি করবেন না’

জঙ্গিদমনে সরকারের সদিচ্ছা পুনর্ব্যক্ত করে তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী জঙ্গিদমনে বদ্ধপরিকর। তিনি বলেন, ‘জঙ্গিদমনে শেখ হাসিনার ইচ্ছার কোন ঘাটতি নেই। সভ্যতা ও মানবসমাজ রক্ষায় গুপ্তহত্যাকারী, জঙ্গিসন্ত্রাসী দানবদের ধ্বংস করতেই হবে। এদের পক্ষে কেউ ওকালতি করবেন না, নির্ভয়ে এদের মোকাবিলায় ঐক্যবদ্ধ হোন।’

তথ্যমন্ত্রী আজ শনিবার দুপুরে রাজধানীতে বাংলা একাডেমির আব্দুল করিম সাহিত্যবিশারদ মিলনায়তনে ড. মো. আনোয়ার হোসেন রচিত ‘অনন্ত আমরা চুপ থাকব না’ প্রবন্ধ গ্রন্থের পাঠ উন্মোচন ও আলোচনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. মো. আনোয়ার হোসেন রচিত বইটিতে ২০১২ সালের শেষ থেকে ২০১৫ সালের মাঝামাঝি অবধি সময় পর্যন্ত লেখা ১৭টি প্রবন্ধ সংকলিত হয়েছে। প্রথম প্রবন্ধের নামই বইটির শিরোনাম এবং শেষ প্রবন্ধের নাম ‘আমরা সবাই এদেশের সন্তান’।

যুদ্ধাপরাধীদের ফাঁসি, ব্লগার হত্যা ও সমসাময়িক রাজনৈতিক-সামাজিক প্রেক্ষিত নিয়ে লেখা এ বইটির প্রকাশনা সংস্থা ‘মত ও পথ’ এর উদ্যোগে আয়োজিত এ অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন শিক্ষাবিদ অধ্যাপক অজয় রায়।

আলোচনা করেন, সংসদ সদস্য শিরিন আখতার, সংসদ সদস্য র আ ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী, ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি শাহরিয়ার কবির, সাবেক সচিব ও কথাসাহিত্যিক রণজিৎ কুমার বিশ্বাস, দৈনিক সমকালের সহযোগী সম্পাদক অজয় দাশগুপ্ত, চলচ্চিত্রকার মোরশেদুল ইসলাম, সাংবাদিক ও লেখক ইমতিয়ার শামীম।

এসময় গুপ্তহত্যাকারী, জঙ্গি, সন্ত্রাসীদের মুক্তচিন্তা ও দেশজ সংস্কৃতির শত্রু বলে বর্ণনা করে হাসানুল হক ইনু বলেন, ‘একাত্তর, পঁচাত্তর, একুশে আগস্টের গ্রেনেড হামলা, আগুনসন্ত্রাসের ঘাতক জঙ্গিচক্রই গুপ্তহত্যাকারী। এরা দেশ, স্বাধীনতা, গণতন্ত্র, মানবতা, দেশজ সংস্কৃতি ও ধর্মবিরোধী নরঘাতকের দল। দেশ স্বাধীন করতে যেমন হানাদার পাকিস্তানীদের বিদায় দিতে হয়েছে, তেমনি আধুনিক দেশ গড়তে গুপ্তহত্যাকারী-জঙ্গিসন্ত্রাসী ও তাদের দোসরদের রাজনীতি থেকে বিতাড়িত করতে হবে।’

যুদ্ধাপরাধীদের ফাঁসির দাবিতে সোচ্চার তরুণ, ব্লগলেখক, প্রকাশক ও শিক্ষক হত্যার ঘটনা বিশ্লেষণে তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘আগুনযুদ্ধে পরাজিত হবার পর গুপ্তহত্যার নূতন কৌশল গ্রহণ করা হয়েছে। বেগম খালেদা ও বিএনপি এখনো রাজাকার ও সন্ত্রাসী জামাতের সঙ্গে রাজনৈতিক চুক্তিতে আবদ্ধ। যতদিন এ চুক্তি থাকবে, ততদিনই গুপ্তহত্যা ও জঙ্গি-সন্ত্রাসী ঘটনায় তারা সন্দেহের তালিকায় থাকবে। এখনো বিএনপি-জামাতের ছাতার নিচেই জঙ্গি আস্তনা।’

বক্তৃতার পাশাপশি জয়ন্ত চট্টোপাধ্যায়, ড. শাহাদত হোসেন নীপুসহ বিশিষ্ট আবৃত্তিকারদের কবিতাসমৃদ্ধ অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন শিল্পী ডালিয়া আহমেদ।