Sheersha Media

ব্রেকিং নিউজ

রাত ১২:৩৫ ঢাকা, সোমবার  ১৯শে নভেম্বর ২০১৮ ইং

ছোট্ট সোনমনির সুস্থতায় কিছু খাবারকে ‘না’ বলুন

দোকানে সাজানো সারি সারি রঙিন জুসের বোতল, আকর্ষণীয় মোড়কে মুখরোচক খাবার দেখে একরাশ চিন্তা ভিড় করবে যেকোনো সচেতন মানুষের। কারণ, দেহের জন্য ক্ষতিকর কেমিক্যাল, রঙ, কৃত্রিম ঘ্রাণ, স্বাদ বাড়াতে টেস্টিং সল্ট, উপাদানে ভেজাল এসব খাবারের মূল বৈশিষ্ট্য। টিভিতে রজরকাড়া বিজ্ঞাপনে মন ভুলে যায় ছোট্ট সোনমনির। স্কুল, কোচিং থেকে ফেরা বা বেড়াতে গেলে তাদের হাতে শোভা পায় নানা খাবার। তাদের আবদারের তালিকায় বাদ যায় না চকলেট, আইসক্রিম, চিপস, বার্গার, পিজা, চিকেন ফ্রাই ইত্যাদি। অসচেতন বাবা-মা’রা নির্দ্বিধায় এসব খাবার তুলে দিচ্ছে সেসব বাচ্চার বায়না মেটাতে। অথচ আদরের শিশুটির আবদার রক্ষা করতে গিয়ে আপনিই ঠেলে দিচ্ছেন প্রাণনাশের দিকে। তাই বাচ্চার সুস্থতার কথা চিন্তা করে কিছু খাবারকে না বলুন আজই। যেমন-

ফাস্ট ফুড

ফাস্ট ফুড জাতীয় খাবারের প্রতি ছোট বড় সবারই বেশ আকর্ষণ রয়েছে। বার্গার, স্যান্ডউইচ, চিপস, রোল, হটডগ, সমুচা বড়দের জন্য যতটা ক্ষতিকর ছোটদের জন্য তা প্রায় ১০ গুন বেশি। বাচ্চাদের দেহের চাহিদার চেয়ে এই খাবার থাকে প্রচুর পরিমাণে ফ্যাট, ক্যালরি এবং সোডিয়ামে ঠাসা। ফলে হিতে বিপরীত হয়ে দাঁড়ায় উপকারী উপাদান গুলো।

স্মুদি

ইদানীং স্মুদির প্রচলন বেড়ে গেছে অনেকখানি। অনেক গুলো ফলের দিয়ে তৈরি হয় বলে অভিভাবকগণ স্মুদিকে স্বাস্থ্যকর মনে করেন। কিন্তু আপনি জানেন কি মাত্র এক গ্লাস স্মুদিতে থাকে ৫০০ ক্যালরি, যা বাচ্চাদের দেহের চাহিদার তুলনায় অনেক বেশি। অতিরিক্ত ক্যালরি বাচ্চাদের স্বাভাবিক দেহক্রিয়ায় বাধা হয়ে দাঁড়ায়। তাই স্মুদি থেকে বাচ্চাদের দূরে রাখা মঙ্গল। তবে বাচ্চার স্বাস্থ্য রক্ষায় পরিমিত তাজা ফলের রস দিতে পারেন।

ইনস্ট্যান্ট নুডলস

ইনস্ট্যান্ট নুডলসের ননস্টিকি ভাব তৈরিতে ব্যবহার হয় ওয়াক্স নামক রাসায়নিক উপাদান। এই উপাদান আমাদের স্বাস্থ্যের জন্য অনেক ক্ষতিকর। একজন পূর্ণবয়স্ক মানুষের পেট থেকে ১ প্যাকেট ইনস্ট্যান্ট নুডলসের ওয়াক্স পরিষ্কার হতে সময় নেয় ১ সপ্তাহ। সেক্ষেত্রে একটি শিশুর বেলায় তা আরও বেশি সময় নেয়। তাই ইনস্ট্যান্ট নুডলস থেকে বাচ্চাকে দূরে রাখা উত্তম।

চকলেট বার

চকলেট বার এবং গ্রানোলা বারগুলো পূর্ণবয়স্ক মানুষের ক্ষেত্রে যেমনটা ক্ষতিকর তেমনই ক্ষতিকর বাচ্চাদের ক্ষেত্রেও। চিনিতে ভরপুর এই বারগুলো অন্য যে কোন মিষ্টি জাতীয় খাবার থেকে বেশি ক্ষতিকর। তাই বাচ্চাদের হাতে পুরো একটি চকলেট এবং গ্রানোলা বার ধরিয়ে দেয়ার আগে চিন্তা করুন।

কৃত্রিম ঘ্রাণ

চীজ এবং ফ্লেভারড দইয়ে যোগ হয় আর্টিফিশিয়াল ফ্লেভার। বাচ্চাদের দেহের জন্য এই ফ্লেভার অত্যন্ত ক্ষতিকারক। তাই এসব খাবার থেকে বাচ্চাদের দূরে রাখা শ্রেয়।