Sheersha Media

ব্রেকিং নিউজ

রাত ৪:৪৫ ঢাকা, বৃহস্পতিবার  ১৫ই নভেম্বর ২০১৮ ইং

মেয়র আনিসুল

চিকুনগুনিয়ার বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করেছি: মেয়র আনিসুল

ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র আনিসুল হক বলেছেন, নগরীর মশক নিধনে সিটি কর্পোরেশন সর্বশক্তি নিয়োগ করেছে। চিকুনগুনিয়া আর বাড়তে দেয়া হবে না। দ্রুততম সময়ের মধ্যে চিকুনগুনিয়া নিয়ন্ত্রণে চলে আসবে আশাবাদ ব্যক্ত করে তিনি বলেন, ‘চিকুনগুনিয়ার বিরুদ্ধে আমরা যুদ্ধ ঘোষণা করেছি। সাধারণ মানুষের কষ্ট লাঘবে প্রয়োজনীয় সব পদক্ষেপ নেয়ার প্রতিশ্রুতি দিচ্ছি। একজন মানুষেরও যেন আর কষ্ট না হয় সেই লক্ষ্যে আমরা কাজ করছি ও করবো। এ বিষয়ে আমূল পরিবর্তন আনবো।’

আজ চিকুনগুনিয়া প্রতিরোধে ডিএনসিসি আয়োজিত সচেতনতামূলক র‌্যালির উদ্বোধনকালে মেয়র এসব কথা বলেন।

শুক্রবার এক সংবাদ সম্মেলনে দেয়া বক্তব্যের জন্য দুঃখ প্রকাশ করে ডিএনসিসি মেয়র আনিসুল হক বলেন, ‘আসলে যেভাবে বলতে চেয়েছি সেভাবে হয়তো বলতে পারিনি। আমরা বলেছিলাম যে, বাড়ির ভেতরে ঢোকার অধিকার আমাদের নেই। আমরা কাউকে আঘাত করতে চাইনি, কেউ আঘাত পেয়ে থাকলে আমি দুঃখিত। আমরা চিকুনগুনিয়া প্রতিরোধের চেষ্টা করছি। সমস্ত শক্তি নিয়ে মাঠে নেমেছি।’

জনসাধারণকে সচেতন হওয়ার আহবান জানিয়ে তিনি বলেন, সচেতনতা বৃদ্ধির জন্য আরও অনেক এলাকায় র‌্যালি করা হবে। মশক নিধনে বিপ্লব ঘটানো হবে। ডিএনসিসি এলাকার সকল রাস্তার তালিকা করা হয়েছে। মশক নিধন কর্মীরা সেই অনুযায়ী কাজ করবেন।

মেয়র বলেন, ‘এলাকার মানুষ যদি মশক নিধনকর্মীদের কাজে আশানুরূপ ফল না পান, তাহলে তাদের বেতন দেয়া হবে না। কেউ দায়িত্বে অবহেলা করলে তার চাকরি চলে যাবে। গত ২ বছরে ১০৯ জনের চাকরি চলে গেছে যা গত ১৫ বছরেও হয়নি।’

র‌্যালিতে ঢাকা-১১ আসনের সংসদ সদস্য এ কে এম রহমতুল্লাহ, ডিএনসিসির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মেসবাহ উল আলমসহ ডিএনসিসির কর্মকর্তা-কর্মচারী, কাউন্সিলর, এলাকাবাসী এবং বনানী বিদ্যানিকেতন ও গুলশান মডেল স্কুলের শিক্ষার্থীরা অংশ নেন। এরপর ডিএনসিসির মশক নিধন কর্মীরা অভিযানে নামেন।