Sheersha Media

ব্রেকিং নিউজ

রাত ৯:২৩ ঢাকা, বুধবার  ১৪ই নভেম্বর ২০১৮ ইং

চাল

চালের আমদানি শুল্কে বড় ধরণের হ্রাসের সিদ্ধান্ত

বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ বলেছেন, চালের বাজারমূল্য স্থিতিশীল রাখতে সরকার চলমান আমদানি ১৮ ভাগ শুল্ক হ্রাস করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

তিনি বলেন, সাধারণ মানুষের ক্রয়ক্ষমতার কথা চিন্তা করে এখন থেকে ১০ শতাংশ আমদানি শুল্ক দিয়ে চাল আমদানি করা যাবে। এতে করে চলমান বাজার মূল্য দ্রুত স্বাভাবিক হয়ে আসবে।

মন্ত্রী আজ সচিবালয়ে ‘প্রতিযোগিতা আইন-২০১২’ বিষয়ক অবহিতকরণ কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এ কথা বলেন।

পূর্বে বাজারপ্রতি ১০ ভাগ আমদানি শুল্কের পাশাপাশি কৃষকদের অধিকার নিশ্চিত করতে ১৫ ভাগ রেগুলারেটরি ডিউটি (আরডি) এবং ৩ ভাগ সম্পপূরক শুল্কসহ মোট ২৮ ভাগ শুল্ক দিতে হতো এ কথা উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, ‘বাজারে পণ্যের মূল্য ইচ্ছাকৃত বৃদ্ধির চেষ্টা করা হয়েছিল। কিন্তু প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহনের ফলে পণ্যমূল্য স্বাভাবিক রয়েছে। স্থায়ীভাবে পণ্যের বাজার স্বাভাবিক রাখতে সরকার সবধরনের পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে।

প্রতিযোগিতা আইনের বিষয়ে বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, ‘ব্যবসা-বাণিজ্যে সুস্থ প্রতিযোগিতামূলক পরিবেশ নিশ্চিত করে ষড়যন্ত্রমূলক যোগসাজস, মনোপলি, জোটবদ্ধতার মাধ্যমে পণ্যের মূল্য বৃদ্ধির প্রবনতা বন্ধ করতে সরকার ২০১২ সালে প্রতিযোগিতা আইন পাস করেছে। সে মোতাবেক প্রতিযোগিতা কমিশন গঠন করা হয়েছে’। ‘দেশে স্বাভাবিক প্রতিযোগিতার মাধ্যমে ব্যবসা-বাণিজ্য পরিচালনার জন্য সরকার সবধরনের পদক্ষেপ নিয়ে যাচ্ছে। প্রতিযোগিতা কমিশন সে লক্ষ্যে কাজ করে যাবে। দেশীয় শিল্পকে রক্ষা করে সরকার প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিয়ে যাচ্ছে’ বলেও জানান তিনি।

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, প্রস্তাবিত বাজেট দেশের মানুষের প্রত্যাশা মতো সংশোধিত আকারে পাস করা হবে। পাসকৃত বাজেট দেশের মানুষের কাছে গ্রহণযোগ্য হবে এবং মানুষ খুশি হবেন। তিনি জাতীয় সংসদে এমন বাজেট পাস করা হবে, যা সকলের কাছ গ্রহণযোগ্য হবে। বাজেট পাসের পর আর কোন আলোচনা বা সমালোচনা থাকবে না বলেও উল্লেখ করেন।

প্রতিযোগিতা কমিশনের চেয়ারম্যান মো. ইকবাল খান চৌধুরীর সভাপতিত্বে কর্মশালায় বিশেষ অতিথি ছিলেন বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব শুভাশীষ বসু।

অনুষ্ঠানে মূল আলোচক ছিলেন ইষ্ট-ওয়েষ্ট ইউনিভার্সিটির অধ্যাপক ও বিশিষ্ট অর্থনীতিবিদ ড. এ. কে. এনামূল হক।