Sheersha Media

ব্রেকিং নিউজ

সন্ধ্যা ৭:৩১ ঢাকা, শনিবার  ১৭ই নভেম্বর ২০১৮ ইং

‘চামড়ার মূল্য ঘোষণার আহবান বাণিজ্যমন্ত্রীর’

আগামী ৪৮ ঘন্টার মধ্যে চামড়ার উপযুক্ত মূল্য ঘোষণা করার জন্য চামড়া ব্যবসায়ীদের প্রতি আহবান জানিয়েছেন বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ।

আজ সচিবালয়ে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে কোরবানীর পশুর কাঁচা চামড়ার মূল্য নির্ধারণ, কাঁচা চামড়া সংগ্রহ, প্রক্রিয়াজাত করণ, প্রচার এবং অন্যান্য প্রাসঙ্গিক বিষয়ে অনুষ্ঠিত সভায় সভাপতিত্ব করে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা বলেন ।

তোফায়েল আহমেদ ব্যবসায়দের উদ্দেশ্যে আরো বলেন, আন্তর্জাতিক বাজারের সাথে সামঞ্জস্য রেখে চামড়ার উপযুক্ত মূল্য নিশ্চিত করতে হবে। যাতে কোন অবস্থাতেই প্রকৃত প্রাপকগণ উপযুক্ত মূল্য থেকে বঞ্চিত না হন।

বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের অনুমোদন নিয়ে সাংবাদিক সম্মেলন করে এ চামড়ার মূল্য ঘোষণা করার কথা উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, সিন্ডিকেট করে চামড়ার মূল্য কমানোর সুযোগ দেয়া হবে না । গত বছর চামড়ার সর্বনি¤œ প্রতি বর্গফুট মূল্য ছিল চামড়া ভেদে ৫০ থেকে ৫৫ টাকা। এবছরও চামড়ার উপযুক্ত মূল্য নিশ্চিত করতে হবে।

তোফায়েল আহমেদ বলেন, চামড়া বাংলাদেশের গুরুত্বপূর্ণ রপ্তানি পণ্য। দেশে উৎপাদিত চামড়ার সিংহভাগ আসে কোরবানীর ঈদের সময়। চামড়া যাতে পাচার না হয়, সেজন্য দেশের আইন শৃঙ্খলা ও সীমান্ত রক্ষাকারী বাহিনীতে উপযুক্ত ব্যবস্থা গ্রহনের নির্দেশ প্রদান করা হয়েছে। কাঁচা চামড়া যাতে নষ্ট না হয়, সেজন্য প্রয়োজনীয় লবণ সরবরাহের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। দেশের লবণ চাষিরা যাতে ক্ষতিগ্রস্ত না হয়, সে বিষয় বিবেচনায় রেখে ইতোমধ্যে প্রয়োজনীয় লবণ আমদানির জন্য অনুমতি প্রদান করা হয়েছে বলে মন্ত্রী জানান।

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, বিশে^র মধ্যে বাংলাদেশেল চামড়ার মান অনেক ভাল। সে কারণেই বিশ^বাজারে বাংলাদেশের চামড়ার প্রচুর চাহিদা রয়েছে। দিনদিন চামড়া ও চামড়াজাত পণ্য রপ্তানি বৃদ্ধি পাচ্ছে। তোফায়েল আহমেদ বলেন, ভারতীয় গরু আমদানি বন্ধের পর দেশে গরুর উৎপাদন উল্লেখযোগ্য হারে বৃদ্ধি পেয়েছে। গত বছর বিক্রয়যোগ্য গরুর পরিমাণ ছিল ৯৬ লাখ ৩৫ হাজার, এ বছর তা বৃদ্ধি পেয়ে হয়েছে ১ কোটি ৪ লাখ। এ সকল পশুকে স্বাস্থ্যসম্মত ভাবে কোরবানীর জন্য উপযুক্ত করে তোলা হয়েছে। দেশের চাহিদা পূরণের জন্য পর্যাপ্ত কোরবানীর পশু দেশে মজুত রয়েছে। কোরবানীর পশু সংকটের কোন সম্ভাবনা নেই।

সভায় বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব হেদায়েতুল্লাহ আল মামুন, অতিরিক্ত সচিব কাজী সালাহউদ্দিন আকবর, রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরোর ভিসি মাফরুহা সুলতানা, অতিরিক্ত সচিব(আমদানি) মুন্সী সফিউল হক, প্রধান আমদানি ও রপ্তানি নিয়ন্ত্রক আফরোজা খান, বাংলাদেশ টেনার্স এ্যাসোসিয়েশনের চেয়ারম্যান মো. শাহেন আহমেদ, ফিনিস লেদার এ্যাসোসিয়েমনের চেয়ারম্যান মহিউদ্দিন আহমেদসহ সংশ্লিষ্ট ব্যবসায়ী সংগঠনের প্রতিনিধি, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রনালয়, বাংলাদেশ ব্যাংক, বিজিবি, বাংলাদেশ পুলিশ এর প্রতিনিধিগণ উপস্থিত ছিলেন।