ব্রেকিং নিউজ

সন্ধ্যা ৭:১৮ ঢাকা, বুধবার  ১৯শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

ফাইল ফটো

চাপ দিয়ে প্রার্থিতা প্রত্যাহারে ব্যবস্থা : ইসি

‘চাপ’ সৃষ্টি করে কাউকে প্রার্থিতা প্রত্যাহারে বাধ্য করার লিখিত অভিযোগ আমলে নেয়া হবে বলে নির্বাচন কমিশনার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) জাবেদ আলী আভাস দিয়েছেন।
রবিবার দুপুরে নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপচারিতায় তিনি এ আভাস দিয়ে জানান,এ ক্ষেত্রে ওই প্রার্থীকে কমিশন বরাবর লিখিত অভিযোগ করতে হবে।
বিদ্রোহী প্রার্থীদের নির্বাচন থেকে সরে যেতে দলের পক্ষ থেকে চাপ দেয়া ‘আচরণবিধি লঙ্ঘন কিনা’ প্রশ্নের জিজ্ঞাসায় তিনি বলেন, ‘প্রার্থী দলীয় বা স্বতন্ত্র হোক, সবাই সমান। সবাই একই রকম ব্যবস্থা ও সহযোগিতা পাবেন। কোনো প্রার্থী নির্বাচন সংক্রান্ত বিষয়ে আমাদের কাছে যদি সহযোগিতা চান, সেটা আমাদের কাছ থেকে তারা পাবেন। নির্বাচনের সঙ্গে সম্পৃক্ত যেকোনো সমস্যা প্রার্থীর কাছ থেকে এলে ইসি আমলে নিয়ে আইগতভাবে সহযোগিতা করবে। তবে তাদের লিখিত অভিযোগ করতে হবে।’
মন্ত্রীদের বিরুদ্ধে রিটার্নিং কর্মকর্তাদের ব্যবস্থা নেয়ার বিষয়ে জাবেদ আলী বলেন, ‘কীভাবে কাজ করতে হবে, বিধিতে বলা আছে। ইসির সুপারিশের জন্য বসে থাকার সুযোগ নেই।’
ম্যাজিস্ট্রেটরা বিধি লঙ্ঘনকারীদের বিরুদ্ধে কী ধরনের শাস্তি দেবেন জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আচরণবিধিতে বলা আছে, নির্বাহী ও বিচারিক ম্যাজিস্ট্রেট কি করবেন? কারাদণ্ড ও অর্থদণ্ড অথবা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হতে পারেন।’
এ সময় নির্বাচনে তিনি প্রার্থী ও তাদের সমর্থকরা এ ধরনের অপরাধ করবেন না বলে আশা প্রকাশ করেন।
ইসির ওপর আস্থা নেই, বিএনপির এমন অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে তিনি বলেন, ‘সবার জন্য সমানতালে সমানভাবে আমরা কাজ করব। সবাইকে একই ট্রিটমেন্ট দেব।’
এ সময় তিনি বলেন, ‘রিটার্নিং অফিসারদের দায়িত্ব পালনে অবহেলা করলে তাদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেয়া হবে