ব্রেকিং নিউজ

সকাল ৬:৩৯ ঢাকা, রবিবার  ২২শে জুলাই ২০১৮ ইং

সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের
আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, ফাইল ফটো

চাঁদাবাজ-সন্ত্রাসীকে আ. লীগে আনা যাবে না

চিহ্নিত চাঁদাবাজ, সন্ত্রাসী ও কোন সাম্প্রদায়িক পক্ষের শক্তির মানুষকে আওয়ামী লীগের দলীয় সদস্য পদ না দিতে নির্দেশ দিয়েছেন দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

তিনি বলেন, ‘ঘরে ঘরে গিয়ে সদস্য সংগ্রহ করতে হবে। কোন চিহ্নিত চাঁদাবাজ, কোন চিহ্নিত সন্ত্রাসী, চিহ্নিত সাম্প্রদায়িক শক্তির মানুষ আওয়ামী লীগের সদস্য হতে পারবেন না।’

ওবায়দুল কাদের আজ মঙ্গলবার বিকেলে বঙ্গবন্ধু এভিনিউস্থ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগ আয়োজিত সদস্য সংগ্রহ ও নবায়ন কার্যক্রমের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি বক্তব্যে এ কথা বলেন।

ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল হাসনাতের সভাপতিত্বে সভায় খাদ্যমন্ত্রী এডভোকেট কামরুল ইসলাম, আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক ড. আবদুস সোবহান গোলাপ, মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আব্দুল হক সবুজ, সাংগঠনিক সম্পাদক হেদায়তুল ইসলাম স্বপন প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘এই নগরীতে সুশিক্ষিত, ভদ্রলোক, যারা মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী তাদের সদস্য করতে হবে। জোর করে কাউকে দলের সদস্য করবেন না। যারা আওয়ামী লীগকে ভালোবাসে, নেত্রীকে ভালোবাসে তাদের সদস্য করবেন।’

আওয়ামী লীগের সদস্য করতে নারী ও তরুণ প্রজন্মকে অধিক গুরুত্বরোপ করার নির্দেশ দিয়ে তিনি বলেন, সদস্য করার ক্ষেত্রে নারী ও তরুণ প্রজন্মকে অধিক গুরুত্ব দিতে হবে। নারীদের বাদ দিয়ে দেশেকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া সম্ভব নয়। তাই নারীদেরকে আওয়ামী লীগের সদস্য পদ দিতে অধিক গুরুত্ব দিবেন।

সকল ভেদাভেদ ভুলে দলীয় নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধ হবার আহবান জানিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, দলকে ঐক্যবদ্ধ রাখুন আগামী নির্বাচনে বিজয়ী হতে হবে। বিএনপিকে নিয়ে চিন্তা করার কোন কারণ নেই। বিএনপি এখন এলোমেলো পার্টি। নির্বাচনের মাঠে তারা আওয়ামী লীগ থেকে অনেক পিছিয়ে।

২০১৮ সালের ডিসেম্বরে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে জানিয়ে তিনি বলেন, ‘২০১৮ সালের ডিসেম্বর মাসে ফাইনাল খেলা হবে। বিজয়ের মাসে আমরা আর একটি বিজয় লাভ করতে চাই। এজন্য সবাইকে ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে।

এর আগে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল হাসনাত এবং সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদের সদস্য পদ নবায়নের মাধ্যমে এই কর্মসূচির উদ্বোধন করেন ওবায়দুল কাদের।

 

আরো পড়তে পারেন 

‘মুসলমানরাই’ নির্যাতন চালায় : হিন্দু রোহিঙ্গারা