আইনমন্ত্রী আনিসুল হক
সচিবালয়ে সুইজারল্যান্ড ও সুইডেনের রাষ্ট্রদূত এবং জাতিসংঘ ও ইউএনডিপির প্রতিনিধিদের সঙ্গে বৈঠকে আইনমন্ত্রী আনিসুল হক।

চলমান মামলার রিপোর্টিং করা যাবে, ধারণা আইনমন্ত্রীর

আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন, তিনি যেটা বুঝেছেন চলমান মামলা নিয়ে গণমাধ্যমে রিপোর্ট করতে বাধা নেই। তবে মামলা হয়েছে কিন্তু কার্যক্রম চলছে না, সেটা নিয়ে মতামত দেয়া যাবে না।

রোববার সচিবালয়ে সুইজারল্যান্ড ও সুইডেনের রাষ্ট্রদূত এবং জাতিসংঘ ও ইউএনডিপির প্রতিনিধিদের সঙ্গে বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি একথা জানান।

বিচারাধীন মামলা বা মামলার শুনানি নিয়ে রিপোর্ট করার বিষয়ে বিরত থাকার জন্য গত ১৬ মে সুপ্রিমকোর্টের রেজিস্ট্রারের সই করা এক নির্দেশনা দেয়া হয়। ওই নির্দেশনা গণমাধ্যমে আসার পর সাংবাদিকদের মাঝে ব্যাপক প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়।

এ নিয়ে সাংবাদিকরা আইনমন্ত্রীর কাছে প্রশ্ন তোলেন, কেন বিচারাধীন বিষয়ে রিপোর্ট করা যাবে না? এ নিয়ে আইনগত কোনো নিষেধাজ্ঞা আছে কিনা; জানতে চাইলে আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেন, ‘আমি আপনাদের একটি বিষয় পরিষ্কার বলতে চাই, সাব-জুডিস (বিচারাধীন মামলা) কথাটার একটা অর্থ আছে। সাব জুডিস বলতে আমি যেটা বুঝি, সেটা আগে বলি, এরপর ওটা পরিষ্কার করি। সাব-জুডিস হচ্ছে- এমন মামলা, যেটা বিচারাধীন আছে। কিন্তু বিচার কার্যক্রম চলছে না। মামলা যেটা বিচারাধীন আছে, কিন্তু বিচার কার্যক্রম চলছে না এমন মামলার ব্যাপারে মতামত দেয়ার বিষয়টিই বলেছেন সুপ্রিমকোর্ট। তারা বলেছেন- এই ব্যাপারে মতামত না দিতে।’

মন্ত্রী বলেন, ‘একটা মামলা চলছে, সেটার ব্যাপারে রিপোর্টিং বন্ধ করতে হবে- আমার মনে হয় না, সুপ্রিমকোর্ট এই কথা বলেছেন। আপনারা মামলার রিপোর্টিং করতে পারেন। তবে যে মামলাটা বিচারাধীন আছে, সেই মামলাটা নিয়ে আপনারা মতামত দেন। তাহলে যেটা হবে সেটা হচ্ছে- মিডিয়াতেই একটা ট্রায়াল হয়ে যাবে। বিচারক বা বিচারপতির ওপর এই ব্যাপারে একটু চাপ সৃষ্টি হয়, সেজন্য তারা এই কথাটা বলেছেন।’

আনিসুল হক বলেন ‘আমি যে বিষয়টি পরিষ্কার করে দিতে চাই। রিপোর্টিং আর মতামত আলাদা করতে হবে। আলাদাভাবে দেখতে হবে।’

তিনি বলেন, ‘যে মামলা চলছে, সেই মামলার রিপোর্টিং করতে কোনো বাধা নেই। কিন্তু যে মামলা কার্যক্রম চলছে না, সেটার বিষয়ে কোনো মতামত দেয়া থেকে বিরত থাকতে বলেছেন। ওনারা (বিচারপতি) আমাদের ডিরেক্টলি বলেননি। আমি ওনাদের কথা থেকে এটা বুঝেছি।’

সুপ্রিমকের্টের বিজ্ঞপ্তিতে কিন্তু এভাবে বলা নেই- সাংবাদিকরা এ বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করলে আইনমন্ত্রী হাসতে হাসতে বলেন, ‘ওনাদের ওখানে তো আনিসুল হক নামে কোনো ল’ইয়ার ছিল না।’

এ সময় সাংবাদিকদের উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘আমার মনে হয় মর্মার্থ হলো এটাই। আমি যা বললাম। আপনারা যদি মনে করেন, এ ব্যাপারে আপিল বিভাগের সুস্পষ্ট মতামত চান, আপিল বিভাগকে জিজ্ঞাসা করুন। আমার মনে হয়, আমি যা বললাম ওনারা তাই বলবেন।’