আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা
আওয়ামী লীগের সংসদীয় দলের সভায় আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা

চতুর্থ বারের মত প্রধানমন্ত্রী হচ্ছেন শেখ হাসিনা

আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা চতুর্থ বারের মত এবং একটানা তৃতীয় বার দেশের প্রধানমন্ত্রী হতে যাচ্ছেন।

তিনি আজ সর্বসম্মতিক্রমে আওয়ামী লীগের সংসদীয় দলের নেতা পুনর্নির্বাচিত হয়েছেন।

‘জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কন্যা শেখ হাসিনা, যিনি একজন জননন্দিত নেতা এবং আন্তর্জাতিক বিশ্বের একজন বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ তিনি চতুর্থ বারের মত দেশের প্রধানমন্ত্রী হতে যাচ্ছেন। কেননা, আমরা সর্বসম্মতিক্রমে তাঁকে আমাদের সংসদীয় দলের নেতা নির্বাচিত করেছি।’ আজ অপরাহ্নে জাতীয় সংসদ ভবনে নবনির্বাচিত সংসদ সদস্যদের নিয়ে আওয়ামী লীগের সংসদীয় দলের প্রথম সভা শেষে দলের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য তোফায়েল আহমেদ সাংবাদিকদের এ কথা বলেন।

তোফায়েল আহমেদ বলেন, আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বৈঠকে আওয়ামী লীগের সংসদীয় দলের নেতা হিসেবে দলের সভাপতি শেখ হাসিনার নাম প্রস্তাব করলে দলের জ্যেষ্ঠ সদস্য আমির হোসেন আমু তা সমর্থন করেন।

তিনি আরো বলেন, সংসদীয় দলের নেতা নির্বাচনের পরে সকল সংসদ সদস্য তুমুল করতালির মাধ্যমে শেখ হাসিনাকে অভিনন্দন জানান।

৩০ ডিসেম্বরের নির্বাচনে দলের বিপুল বিজয় সম্পর্কে এই প্রবীণ আওয়ামী লীগ নেতা বলেন, ‘আমরা পুনরায় আমাদের সোনালী দিনে প্রবেশ করেছি। আগামী ৫ বছর বাংলাদেশের জন্যও হবে সোনালী দিন।’

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বেই বাংলাদেশ আগামী ২০২০ সালে জাতির পিতার জন্ম শতবার্ষিকী এবং ২০২১ সালে স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী উদযাপন করবে।

তোফায়েল বলেন, ‘বাংলাদেশের জনগণ ৩০ ডিসেম্বরের নির্বাচনের মত একটি নির্বাচনের জন্য দীর্ঘ সময় অপেক্ষায় ছিল। যেখানে দেশের সাধারণ জনগণ শেখ হাসিনার নেতৃত্বের স্বীকৃতি দিয়ে স্বাধীন এবং নিরপেক্ষভাবে তাঁদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেছে এবং আওয়ামী লীগকে বিজয়ী করেছে, যেমনটি ১৯৭০ সালে করেছিল।’

জ্যেষ্ঠ এই আওয়ামী লীগ নেতা বলেন, জনগণও বিএনপি-জামাতের দুঃশাসনের সমুচিত জবাব দিয়েছে।

জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সংসদ সদস্যদের সংসদে যোগদানের বিষয় সম্পর্কিত সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, জাতীয় সংসদে সকল দলের নির্বাচিত সংসদ সদস্যগণেরই যোগদান করা উচিত।

আওয়ামী লীগের সংসদীয় দলের সভাশেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথোপকথনে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেন, সভায় আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা সকলকে একযোগে কাজ করে জনগণের আশা এবং আকাঙ্খা পূরণে সচেষ্ট হওয়ার আহবান জানিয়েছেন।

‘দলের বিপুল বিজয়ে আমাদের দলের নেতা-কর্মীদের দায়িত্ব এবং জনগণের প্রত্যাশা অনেক বেড়ে গেছে। জনগণের আস্থা এবং এই মর্যাদাকে দলের নেতা-কর্মীদের সমুন্নত রাখতে হবে, প্রধানমন্ত্রীকে উদ্বৃত করে তিনি বলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, আওয়ামী লীগ সভাপতি দলের নির্বাচনী অঙ্গীকার বাস্তবায়নে এবং তৃণমূল পর্যায়ে সংগঠনকে শক্তিশালীকরণে সকলকে একযোগে কাজ করারও নির্দেশনা প্রদান করেছেন।

প্রধানমন্ত্রীর উদ্বৃতি দিয়ে তিনি বলেন, বিরোধী পক্ষ আইনী লড়াইয়ে অথবা যেকোন প্রকার আন্দোলনে যেতে পারে এবং যেকোন পরিস্থিতি মোকাবেলায় তিনি সকলকে তৈরী থাকারও আহ্বান জানিয়েছেন।

জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সংসদ সদস্যদের সংসদে যোগ দেয়া সংক্রান্ত সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে কাদের বলেন, ‘এটা তাদের নিজস্ব সিদ্ধান্তের বিষয়। এতে আমাদের করণীয় কিছু নেই। কিন্তু আমি মনে করি জনগণের রায়ের প্রতি তাঁদের সম্মান জানানো উচিত।’

মন্ত্রিপরিষদ গঠন বিষয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, জাতীয় সংসদের সংখ্যা গরিষ্ঠ দলের নেতা হিসেবে প্রধানমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা আজ যেকোন সময়ে রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন।

জাতীয় পার্টির মন্ত্রিসভায় যোগদান সম্পর্কিত এক প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘আওয়ামী লীগের সংসদীয় দলের সভায় আজকে এ সম্পর্কে কোন আলোচনা হয় নি। আমরা আলোচনা না করে এ বিষয়ে কোন মন্তব্য করতে পারবো না।’

তিনি আশা প্রকাশ করেন, নবীন এবং অভিজ্ঞ সংসদ সদস্যদের সমন্বয়ের মাধ্যমে গঠিত একাদশ জাতীয় সংসদ একটি কার্যকর সংসদে পরিণত হবে।