Sheersha Media

ব্রেকিং নিউজ

সকাল ৮:৪২ ঢাকা, সোমবার  ১৯শে নভেম্বর ২০১৮ ইং

চট্টগ্রাম ও রাজশাহীতে মেডিকেল ইউনিভার্সিটি স্থাপনে মন্ত্রিসভার অনুমোদন

চট্টগ্রাম ও রাজশাহীতে দু’টি পৃথক মেডিকেল ইউনিভার্সিটি (চিকিৎসা বিশ্ববিদ্যালয়) স্থাপিত হবে।
মন্ত্রিসভার নিয়মিত সাপ্তাহিক বৈঠকে আজ এ লক্ষ্যে চট্টগ্রাম মেডিকেল ইউনিভার্সিটি আইন-২০১৫ এবং রাজশাহী মেডিকেল ইউনিভার্সিটি আইন-২০১৫’র খসড়ার চূড়ান্ত অনুমোদন দেয়া হয়েছে।
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে বাংলাদেশ সচিবালয়ে মন্ত্রিসভার এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।
দেশের স্বাস্থ্যসেবার উন্নয়নে আরো বেশি বিশেষজ্ঞ ‘মেডিকেল পার্সন’ তৈরি করতে ন্যাশনাল হেলথ কাউন্সিলের গত বছরের সিদ্ধান্ত অনুসরণে বিশ্ববিদ্যালয় দু’টি প্রতিষ্ঠার উদ্যোগ নিয়েছে সরকার।
বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের ব্রিফকালে মন্ত্রিপরিষদ সচিব এম মোশাররাফ হোসেইন ভূইঞা বলেন, চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ ও রাজশাহী মেডিকেল কলেজ এবং এ দুই অঞ্চলের অন্যান্য মেডিকেল কলেজ সংশ্লিষ্ট দুই বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত হবে।
তিনি বলেন, এ দুই বিশ্ববিদ্যালয় স্নাতকোত্তর ও নার্সিংয়ে গ্রাজুয়েট ডিগ্রি প্রদান করবে। প্রশাসনিক ও আর্থিক ব্যবস্থাপনায় এ দু’টি স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠান হবে।
এতে সিন্ডিকেট, এ্যাকাডেমিক কাউন্সিল, ফ্যাকাল্টি, ডিনস কমিটি, কারিকুলাম কমিটি, বোর্ড অব এ্যাডভান্সড স্টাডিজ, ফিন্যান্স কমিটি, প্লানিং ও ডেভেলপমেন্ট কমিটি এবং ডিসিপ্লিন কমিটিসহ অন্যান্য কমিটি থাকবে।
রাষ্ট্রপতি বিশ্ববিদ্যালয় দু’টির চ্যান্সেলর হবেন। তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক বা কিছু শর্তসাপেক্ষ চিকিৎসা বিদ্যায় অভিজ্ঞ কোন শিক্ষাবিদকে ভাইস চ্যান্সেলর পদে নিয়োগ দেবেন। এই দুই প্রতিষ্ঠানে দু’জন প্রো-ভাইস চ্যান্সেলর থাকবেন।
মন্ত্রিসভা বৈঠকে অধ্যাদেশ হিসেবে জারির জন্য মানি লন্ডারিং আইন-২০১৫’র খসড়ায়ও অনুমোদন দেয়া হয়েছে। আইনটির জরুরি প্রয়োজনীয়তার বিষয় বিবেচনা করে এ অনুমোদন দেয়া হয় বলে জানান মন্ত্রিপরিষদ সচিব।
তিনি বলেন, মানি লন্ডারিং বিষয়ক এশিয়া-প্যাসিফিক গ্রুপের আন্তঃসরকার সংগঠনের আসন্ন বাংলাদেশ সফরের সময় এর প্রয়োজনীয়তা রয়েছে, যা মানি লন্ডারিং প্রতিরোধে বাংলাদেশের গৃহীত ব্যবস্থার মূল্যায়নে সহায়ক হবে।
মন্ত্রীবর্গ, বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রতিমন্ত্রীবৃন্দ ও সংশ্লিষ্ট সচিবগণ বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন।