ব্রেকিং নিউজ

বিকাল ৫:৩০ ঢাকা, শুক্রবার  ২১শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

নিম্নচাপ

ঘূর্ণিঝড় দুর্বল হয়ে নিম্নচাপে পরিণত, ঝরছে বৃষ্টি

বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট ঘূর্ণিঝড় ‘কায়ান্ট’ দুর্বল হয়ে গভীর নিম্নচাপে পরিণত হয়েছে।

আবহাওয়া অফিস সূত্রে জানা গেছে, পশ্চিম-মধ্য বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন এলাকায় অবস্থানরত ঘূর্ণিঝড় ‘কায়ান্ট’ আরও পশ্চিম-দক্ষিণপশ্চিম দিকে অগ্রসর এবং দুর্বল হয়ে একই এলাকায় গভীর নিম্নচাপে পরিণত হয়েছে।

এর ফলে রাজধানী ঢাকাসহ সারা দেশে কখনো হালকা আবার কখনো মাঝারি বৃষ্টি হচ্ছে।

আবহাওয়ার বুলেটিনে বলা হয়েছে, গভীর নিম্নচাপ কেন্দ্রের ৪৮ কিঃ মিঃ এর মধ্যে বাতাসের একটানা সর্বোচ্চ গতিবেগ ঘন্টায় ৫০ কিঃ মিঃ যা দম্কা অথবা ঝড়ো হাওয়ার আকারে ৬০ কিঃ মিঃ পর্যন্ত বৃদ্ধি পাচ্ছে। গভীর নিম্নচাপ কেন্দ্রের নিকটবর্তী এলাকায় সাগর উত্তাল রয়েছে।

বুলেটিনে চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মংলা ও পায়রা সমুদ্র বন্দরকে ২ নম্বর দূরবর্তী হুঁশিয়ারি সংকেত নামিয়ে তার পরিবর্তে ১ নম্বর পুনঃ ১ নম্বর দূরবর্তী সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।

আবহাওয়ার সর্বশেষ বুলেটিনে বলা হয়েছে, বৃহস্পতিবার সকাল ৯টায় চট্টগ্রাম সমুদ্র বন্দর থেকে ৯৭৫ কিঃ মিঃ দক্ষিণপশ্চিমে, কক্সবাজার সমুদ্র বন্দর থেকে ৯৩০ কিঃ মিঃ দক্ষিণপশ্চিমে, মংলা সমুদ্র বন্দর থেকে ৮৫৫ কিঃ মিঃ দক্ষিণপশ্চিমে এবং পায়রা সমুদ্র বন্দর থেকে ৮৫০ কিঃ মিঃ দক্ষিণপশ্চিমে ঘূণিঝড় ‘কায়ান্ট’ অবস্থান করছিল। এটি আরও পশ্চিম-দক্ষিণপশ্চিম দিকে অগ্রসর হতে পারে।

এদিকে ঘূর্ণিঝড় ‘কায়ান্ট’ দুর্বল হয়ে গভীর নিম্নচাপে পরিণত হওয়ায় বৃহস্পতিবার ভোর থেকে রাজধানী এবং উপকুলীয় জেলাসহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে বৃষ্টি হচ্ছে। বৃষ্টি কখনো হালকা বা গুড়ি গুড়ি আবার মাঝারি আকারে ঝরছে।

হঠাৎই দিনের শুরুতে বৃষ্টিতে কর্মমুখি মানুষ ও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগামী শিক্ষার্থীরা পড়েছেন দুর্ভোগে। বিশেষ করে রাজধানীর মানুষ সাতসকালে কাকভেঁজা হয়েই গন্তব্যে ছুটেন। বৃষ্টিতে সকালের প্রথম দিকে যানবাহন কম থাকায় গন্তব্যমুখিদের দুর্ভোগের মাত্রা ছিল একটু বেশিই।
এর আগে বুধবার আবহাওয়া অফিস জানায়, ঘূর্ণিঝড় ‘কায়ান্টের’ প্রভাবে বৃহস্পতি ও শুক্রবার সারা দেশের আকাশ মেঘলা থাকবে। ওই সময়ে সারা দেশে হালকা বা মাঝারি বৃষ্টি হতে পারে।

তবে খুলনা, চট্টগ্রাম ও বরিশাল বিভাগে ভারী বৃষ্টিপাত হতে পারে বলে আবহাওয়ার বুলেটিনে বলা হয়।