Sheersha Media

ব্রেকিং নিউজ

দুপুর ২:২১ ঢাকা, রবিবার  ১৮ই নভেম্বর ২০১৮ ইং

ফাইল ফটো

“গ্রেনেড ও আগুন সন্ত্রাসীদের বিচার হবে জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে শেষ আঘাত”

তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেছেন, ‘একাত্তর-পঁচাত্তরের হত্যাকারীদের মতোই ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলাকারী ও আগুনসন্ত্রাসীদের বিচারের মাধ্যমে জঙ্গি-সাম্প্রদায়িক অপশক্তির বিরুদ্ধে শেষ আঘাত হানতে হবে।
তিনি বলেন, সাম্যভিত্তিক অসাম্প্রদায়িক সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়তে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে যে লড়াই চলছে, এ আঘাত সে লড়াইয়ে চূড়ান্ত বিজয় নিয়ে আসবে।’
তথ্যমন্ত্রী আজ শুক্রবার সন্ধ্যায় জাতীয় প্রেসক্লাবে কবি মাদবর রফিকের ‘অবিনাশী কন্ঠস্বর’ কাব্যগ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন ও আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এ কথা বলেন। মুক্তিযোদ্ধা সাংস্কৃতিক সংসদ আয়োজিত এ অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নান, সংস্কৃতি ব্যক্তিত্ব শফি কামাল, এবং কবি আসলাম সানী। ড. মিজানুর রহমান শেলী প্রধান আলোচক হিসেবে অংশগ্রহণ করেন।
জাসদ সভাপতি ও তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু শুধু জাতির পিতাই নন, তিনি আধুনিক বাঙালি জাতীয়তাবাদের জন্ম দিয়েছেন।’ ‘বঙ্গবন্ধু’র ডাকে সাম্প্রদায়িকতার আলখাল্লা ত্যাগ করে ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে এদেশের সকলে খুঁজে পেয়েছিল বাঙালিত্বের পরিচয় এবং মহান মুক্তিযুদ্ধে যোগ দিয়ে প্রমাণ করেছিলো বাঙালি বীরের জাতি।
আয়োজক সংস্থার সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা আমির আলীর সভাপতিত্বে মুক্তিযোদ্ধা সাংস্কৃতিক সংসদের মহানগর কমিটির সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল হান্নান শেখ, সংস্কৃতি ব্যক্তিত্ব ড. সৈয়দ রনো, মির্জা আশরাফুল ইসলাম প্রমুখ অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন।
এর আগে মন্ত্রী দুপুরে শিল্পকলা একাডেমিতে খেলাঘর কেন্দ্রীয় আসর আয়োজিত তিন দিনব্যাপী খেলাঘর জাতীয় নৃত্য ও কারু কর্মশালা ২০১৫ উদ্বোধনকালে সমবেত শিশু-কিশোরসহ সকলের উদ্দেশে বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন বাস্তবায়ন করতে হলে এক মুহূর্ত বিশ্রাম নেবার সময় নেই। প্রয়োজন সকলের নিরলস প্রচেষ্টা।’
তিনি এ সময় খেলাঘরের সকল অনুষ্ঠানে সকল শহীদ, মুক্তিযোদ্ধা ও বঙ্গবন্ধুর প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদনের রেওয়াজ প্রচলনের আহ্বান জানান।
খেলাঘরের সভাপতি অধ্যাপক মাহফুজা খানমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা করেন খেলাঘরের উপদেষ্টা ও প্রখ্যাত অভিনয়শিল্পী সৈয়দ হাসান ইমাম এবং লায়লা হাসান।
রাজধানীর নায়েম মিলনায়তনে সকালে ইতিহাস ও ঐতিহ্য বিষয়ক একাদশ সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তথ্যমন্ত্রী ইনু বলেন, ঢাকা আর কখনো মোহম্মদী বেগ বা মোশতাকের ইতিহাস হবে না, ঢাকা হবে সারাবিশ্বে ছড়িয়ে থাকা ৩৫ কোটি বাঙালির আত্মার রাজধানী।
ইতিহাস একাডেমি, ঢাকা আয়োজিত এ সম্মেলনে উপস্থিত দেশী-বিদেশী ইতিহাসবিদদের মন্ত্রী বলেন, ‘যারা বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করেছিল, তারা বাংলাদেশকে হত্যা করতে চেয়েছিল। কিন্তু তারা জাতিকে হত্যা করতে পারেনি। শেখ হাসিনার নেতৃত্বেদেশ আবার বাংলাদেশের পথে এবং বঙ্গবন্ধু স্বমহিমায় স্বগৃহে প্রত্যাবর্তন করছেন।’ মন্ত্রী এসময় ঢাকার ঐতিহাসিক বিকাশের প্রেক্ষাপটসমূহ তুলে ধরেন।
আয়োজক সংস্থার সভাপতি অধ্যাপক ড. কে এম মোহসীনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের প্রফেসর এমেরিটাস ড. আনিসুজ্জামান এবং বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন নায়েমের মহাপরিচালক মো. হামিদুল হক।
বিকেলে জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ মিলনায়তনে বাংলাদেশ মার্শাল আর্ট কনফেডারেশন আয়োজিত ক্রীড়াঙ্গন ও মানবাধিকার বিষয়ক সেমিনারে ক্রীড়াঙ্গনে পুরুষের পাশাপাশি নারীদের এগিয়ে আসার ওপর গুরুত্বারোপ করেন হাসানুল হক ইনু।