Sheersha Media

ব্রেকিং নিউজ

রাত ২:১৯ ঢাকা, বুধবার  ১৪ই নভেম্বর ২০১৮ ইং

ব্যাঙ্কের সামনে গ্রাহকদের ভিড়

গ্রিসে ব্যাঙ্ক থেকে অর্থ তোলার হিড়িক

গ্রিসে গ্রাহকরা ব্যাঙ্ক থেকে কোটি কোটি ইউরো তুলে নিয়েছে গত সপ্তাহে।

এর ফলে ব্যাঙ্কগুলোতে পর্যাপ্ত পরিমাণে নগদ অর্থ আছে কিনা সেটা নিয়ে দেশটিতে আতঙ্ক তৈরি হয়েছে।

গ্রিসে ঋণ সঙ্কট সমাধানের সময় পেরিয়ে আসছে দেখে সঞ্চয়কারীরা ব্যাঙ্ক থেকে তাদের অর্থ তুলে নিচ্ছেন।

ঋণ পরিশোধের ব্যাপারে গ্রিক সরকারের সাথে আন্তর্জাতিক দাতাদের বৈঠক ব্যর্থ হওয়ার খবর ছড়িয়ে পড়ার পর দেশটিতে এই আতঙ্ক তৈরি হয়েছে।

এই পরিস্থিতিতে ব্যাঙ্কগুলোকে আরো কিছু জরুরী অর্থ ঋণ দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ইউরোপিয়ান সেন্ট্রাল ব্যাঙ্ক।

আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল আই এম এফের ঋণ পরিশোধের জন্যে আর মাত্র দু’সপ্তাহের মতো সময় আছে গ্রিসের হাতে।

সমাধানে পৌঁছাতে ব্যর্থ হলে দেশটিকে ইউরোজোন এবং সম্ভবত ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন থেকেও বেরিয়ে যেতে হবে।
গ্রিসের প্রধানমন্ত্রী অ্যালেক্সিস সিপ্রাস বলছেন, এই সঙ্কটের ইতিবাচক সমাধানের চেষ্টা করছে তার সরকার।

তিনি আশা করছেন, শেষ পর্যন্ত তার দেশ ইউরোজোনেই অবস্থান করবে। তবে তার সরকার ও জনগণ গ্রিসের সার্বভৌমত্বের ওপর গুরুত্ব দিচ্ছে।

আইএমএফ, ইউরোপিয়ান কমিশন এবং ইউরোপিয়ান কেন্দ্রীয় ব্যাঙ্ক বলছে, দেশটিতে সংস্কার না হলে তারা ঋণের অর্থ ছাড় করবে না।

তারা বলছে, গ্রিক সরকারকে তাদের বাজেট ঘাটতি পূরণের জন্যে উল্লেখযোগ্য কিছু পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হবে।

সমস্যা সমাধানের সবশেষ চেষ্টা ব্যর্থ হওয়ার পর আগামী সোমবার জরুরী বৈঠক ডাকা হয়েছে।

এতে ইউরোপের ১৯টি দেশের নেতারা উপস্থিত থাকবেন।

এই পরিস্থিতিতে গ্রিক প্রধানমন্ত্রী এখন রুশ অর্থনৈতিক ফোরামের একটি সম্মেলনে অংশ নিচ্ছেন।

গত তিন মাসের মধ্যেই রাশিয়ায় এটি তার দ্বিতীয় সফর।

মস্কো থেকে সংবাদদাতা বলছেন, গ্রিসের হাতে যে আরো একটি বিকল্প আছে, প্রধানমন্ত্রী হয়তো সেটাই ঋণদাতাদের জানিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করছেন।

http://www.bbc.com/bengali/news/2015/06/150619_mrk_greexe_crisis