ব্রেকিং নিউজ

রাত ৮:১১ ঢাকা, বুধবার  ২৬শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

‘গুপ্তহত্যাকারী-জঙ্গি ও তাদের পাহারাদারদের দমন অনিবার্য’- তথ্যমন্ত্রী

তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেছেন, সমাজ ও রাজনীতিকে নিরাপদ করতে গুপ্তহত্যাকারী, জঙ্গি ও এদের পাহারাদারদের দমন অনিবার্য।

আজ রাজধানীতে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে ‘জঙ্গিবাদীদের হাতে ধারাবাহিক হত্যাকা- প্রতিরোধ এবং হত্যাকারীদের বিচারের দাবি’তে জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জাসদ) আয়োজিত মানববন্ধনে তথ্যমন্ত্রী এ কথা বলেন।

হাসানুল হক ইনু অনুষ্ঠানে বলেন, গুপ্তহত্যাকারী ও জঙ্গিরা যমজ অপরাধী। সমাজ ও রাজনীতিকে নিরাপদ করতে এদের এবং এদের পাহারাদার উভয়কেই দমন করতে হবে।

মানববন্ধনে কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দের মধ্যে জাসদের সাধারণ সম্পাদক ও সংসদ সদস্য শিরিন আখতার, সাবেক সংসদ সদস্য এডভোকেট শাহ জিকরুল আহমেদ, নূরুল আখতার, শওকত রায়হান, ওবায়দুর রহমান চুন্নু, নাদের চৌধুরী, বীর মুক্তিযোদ্ধা শফিউদ্দিন মোল্লা, নূরুন্নবী, যুবজোট সভাপতি রোকনুজ্জামান রোকন, শ্রমিক জোটের সাধারণ সম্পাদক নাঈমুল আহসান জুয়েল এবং সাইফুজ্জামান বাদশা বক্তব্য রাখেন।

এর আগে সন্ত্রাস ও জঙ্গি প্রতিরোধে আঞ্চলিক ঐক্য শীর্ষক জাতীয় সেমিনার ২০১৬ এর প্রধান অতিথি হিসেবে হাসানুল হক ইনু বলেন, দ্বৈতনীতি সন্ত্রাসীদের মদদ দেয়। জামাতী-জঙ্গি-সন্ত্রাসীদের রাজনীতির সহযোগী বানিয়ে গণতন্ত্রের কথা বলা দ্বৈতনীতি। আর রাজনীতিতে তাদের জায়গা দেবার তদ্বিরকারকরা গণতন্ত্র ও রাজনীতিতে নিরাপদ করার পথে বড় বাধা।

‘বিশ্ব শান্তি ও মানবাধিকার আন্দোলন বাংলাদেশ’ আয়োজিত এ সেমিনারে সংগঠনের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা বেনজীর আহমদ সভাপতিত্ব করেন।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ক্যাপ্টেন এবি তাজুল ইসলাম, জাতীয় প্রেস কাউন্সিলের চেয়ারম্যান বিচারপতি মমতাজউদ্দিন আহমেদ, সাবেক সচিব বীর মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ মুসা, ভারতীয় দূতাবাস ডেপুটি হাইকমিশনার ড. আদর্শ সোয়াইকা, ব্যারিস্টার তানিয়া আমীর, সাংবাদিক আকরাম হোসেন খান, নিরাপত্তা বিশ্লেষক মেজর জেনারেল আব্দুর রশিদ, আওয়ামী লীগ নেতা রোকন উদ্দিন আহমেদ এবং হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ নেতা লিটন চন্দ্র পাল বক্তৃতা করেন।

সেমিনারে পঠিত সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক ফনিন্দ্র সরকারের ‘সন্ত্রাস ও জঙ্গি প্রতিরোধে আঞ্চলিক ঐক্য’ শীর্ষক প্রবন্ধের ওপর আলোকপাতকালে আলোচকরা বিশ্বব্যাপী তথা বাংলাদেশে সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ প্রতিরোধে আন্তর্জাতিক ঐক্যের ওপর গুরুত্বারোপ করেন।