ব্রেকিং নিউজ

ভোর ৫:৩৪ ঢাকা, শনিবার  ২২শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

পিটিয়ে হত্যা

গাজীপুরে প্রকাশ্যে স্ত্রী-কে পিটিয়ে হত্যা

ঈদের দিন রাতভর পিটিয়ে খোলা মাঠে গৃহবধু সুফিয়া আক্তার (৪০) কে ফেলে রাখে তার পাষণ্ড স্বামী। প্রায় নয় ঘন্টা মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ে রবিবার বিকেলে তার মৃত্যু হয়। ঘটনার প্রায় পাঁচ ঘন্টা পর পুলিশ নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে।

বর্বরোচিত এ হত্যাকাণ্ড ঘটেছে রবিবার বিকেলে গাজীপুরের শ্রীপুর পৌর এলাকার বেড়াইদের চালা গ্রামে। নিহত সুফিয়া শ্রীপুরের কেওয়া ছাপিলা পাড়া গ্রামের মৃত সামসুদ্দিন উরফে সামুর কন্যা। ঘটনার পরই নিহতের স্বামী ২নং সি.এন্ড.বি এলাকার হাবিবুর রহমান হবির পুত্র আবুল মুন্সি পালিয়ে গেছে।

নিহতের পারিবারিক সূত্র বলছে, আবুল প্রথম স্ত্রী রেখে প্রায় দশ বছর পূর্বে সুফিয়াকে বিয়ে করে। দু’স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়া লেগেই থাকতো। পারিবারিক কলহের কারণে আবুল আড়াই বছর পূর্বে দ্বিতীয় স্ত্রী সুফিয়াকে নিয়ে পার্শ্ববর্তী বেড়াইদের চালা গ্রামের কুলসুমের বাড়িতে ভাড়া থাকতো।

সম্প্রতি আবুল সুফিয়ার নিকট চার লাখ টাকা যৌতুক দাবি করে। যৌতুকের টাকা না পেয়ে পাষণ্ড স্বামী আবুল ঈদের দিন রাতভর সুফিয়ার ওপর নির্মম নির্যাতন করে। নির্যাতন সইতে না পেরে সুফিয়া রবিবার সকাল আটটার দিকে বাড়ি থেকে বের হয়ে গ্রিন ফিল্ড নামক কারখানার বাউন্ডারির নিকট পৌছায়। আবুল তাকে ওই স্থানে প্রকাশ্যে মারপিট করে অচেতন অবস্থায় ফেলে রাখে।

স্থানীয় লোকজন আবুলের ভয়ে মুমূর্ষু সুফিয়াকে হাসপাতালে নিতে পারেনি। দিন ভর খোলা আকাশের নিচে রোদ বৃষ্টিতে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ে বিকেল তিনটার দিকে সুফিয়ার মৃত্যু হয়।